• আজ বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৭ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং’র প্রভাবে ভোলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত


❏ সোমবার, অক্টোবর ২৪, ২০২২ দেশের খবর, বরিশাল

এস আই মুকুল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট (ভোলা): ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং এর প্রভাবে ভোলার চরফ্যাসনের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। সোমবার সকাল থেকে লোকজন ঘর থেকে বের হতে পারছে না টানা ঝড়বৃষ্টির কারণে।

বিশেষ করে ঢালচর, চর পাতিলা, চর নিজাম এলাকা ইতোমধ্যেই কোমর পানিতে ডুবে গেছে। সেখানকার বাসিন্দাদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। বন্যা দুর্গতদের জন্য ১৫৮ টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল নোমান।

চর কুকরি মুকরি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসেম মহাজন জানান, চর পাতিলার প্রায় ৪ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পরেছে। রেডক্রিসেন্ট সদস্যরা মাইকিং করে নিরাপদে তাদের আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে বলছেন, কিন্তু তারা ঘরবাড়ি ছেড়ে যেতে নারাজ।

ঢালচর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুস সালাম হাওলাদার জানান, তার ইউনিয়নের মানুষ সবচেয়ে বেশি অসহায় হয়ে পড়েছে।পানিবন্দী হয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে পারছে না নৌযানের অভাবে। বৈরি আবহাওয়ায় কোনো নৌযান পাওয়া যাচ্ছে না।

চরফ্যাসন ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি) কর্মকর্তা মেজবাহুর রশিদ বলেন, চরফ্যাসন উপজেলাতে আমাদের ৩ হাজার ৩০০ সেচ্ছাসেবক রয়েছে। তারা বিচ্ছিন্ন চরগুলো থেকে বন্যা দুর্গতদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে আনতে কাজ করছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল নোমান বলেন, ‘উপজেলা প্রশাসন থেকে বন্যা দুর্গতদের সাহায্যের জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। আশা করছি আমরা কম ক্ষয়ক্ষতির মধ্য দিয়ে এর প্রভাব কাটিয়ে উঠতে পারবো। আজ রাতে এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব আরো বাড়বে বলে আশঙ্কা রয়েছে। আমাদের ১৫৮টি সাইক্লোন শেল্টার আছে। এগুলো খুলে রাখা হয়েছে। শুকনো খাবার এবং অন্যান্য খাদ্য সহায়তা দিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।’

জেলা প্রশাসক মো. তৌফিক-ই-লাহী চৌধুরী জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় মোবাকেলায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। জেলার সরকারি সব দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে থাকতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ভোলা জেলার ৭৪৬টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে।

জেলায় মোট ৮টি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। ১৩ হাজার ৬৬০ জন স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রয়েছে। জেলার ৭০ ইউনিয়ন ও জেলার সাত উপজেলায় একটি করে মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে।