• আজ রবিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২২ ৷

বাংলাদেশে চীনের কোন ঋণের ফাঁদ নেই: লি জিমিং


❏ বুধবার, অক্টোবর ২৬, ২০২২ প্রধান খবর

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা: ঢাকাস্থ নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থা শ্রীলঙ্কার চেয়ে অনেক ভালো এবং বাংলাদেশে চীনের কোন ঋণের ফাঁদ নেই।

বুধবার মধ্যাহ্নে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত ডিকাব-টক অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ দাবি করেন।

মেগা প্রকল্পে দফায় দফায় ব্যয় বাড়ার পাশাপাশির চীনা ঋণের পরিমাণ বৃদ্ধি নিয়ে উদ্বিগ্ন অর্থনীতিবিদরা শ্রীলঙ্কার উদাহরণ টেনে বাংলাদেশও ফাঁদে পড়তে যাচ্ছে কি-না? তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন।

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেন, “শুধু বাংলাদেশে নয় বিশ্বের কোথাও চীনা ঋণের কোনো ফাঁদ নেই। পশ্চিমা বাণিজ্যিক ঋণ এবং বহু-আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ঋণ শ্রীলঙ্কার বৈদেশিক ঋণের সিংহভাগ। সেই দেশের (শ্রীলঙ্কা) মোট বৈদেশিক ঋণের ১০ ভাগেরও কম চীনা ঋণ। বাংলাদেশের ক্ষেত্রেও একই অবস্থা, বিদেশি ঋণের মাত্র ৬ শতাংশ চীনের ঋণ। সেই বিবেচনায় আমি বলব যে বাংলাদেশের অবস্থা শ্রীলঙ্কার চেয়ে অনেক ভালো। বাংলাদেশের মোট বৈদেশিক ঋণের মাত্রাও অনেক কম।

বাংলাদেশের সাথে সম্পর্কের ক্ষেত্রে চীনের দৃষ্টিভঙ্গি প্রতিশ্রুতিশীল জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা একটি উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য বাংলাদেশের সাথে কাজ করতে প্রস্তুত।

চীন ও ভারতের মধ্যে কোনও কৌশলগত প্রতিদ্বন্দ্বিতা নেই এবং বেইজিং মনে করে যদি দুই দেশ একে অপরের সঙ্গে সহযোগিতা করে, পৃথিবীর অর্ধেকের বেশি সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, আমি ভারতের একজন বড় ফ্যান। চীনের শিক্ষিত জনগোষ্ঠির বড় অংশ ভারত বিষয়ে ইতিবাচক ধারনা পোষণ করে। ভারতের সঙ্গে আমাদের কোনও কৌশলগত প্রতিদ্বন্দ্বিতা নেই। তারা আমাদের কৌশলগত প্রতিযোগী নয়।