🕓 সংবাদ শিরোনাম

মির্জা ফখরুল ও মির্জা আব্বাসকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা হয়েছে: ডিবি * হাজারীবাগে ঘরের ভিতর থেকে মা-সন্তানসহ ৩ জনের লাশ উদ্ধার * বাগদান করেও বিয়ে ভেঙে দিলেন নুসরাত ফারিয়া! * মাগুরায় মাদকবাহী পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় দুই র‌্যাব সদস্যসহ নিহত-৩ * মির্জা ফখরুলকে আটকের বিষয়ে যা বললেন তার স্ত্রী * মধ্যরাতে মির্জা ফখরুল ও মির্জা আব্বাসকে আটকের অভিযোগ * শেখ হাসিনার উন্নয়নের জোয়ারে মানুষ মঙ্গা ভুলে গেছেন : আসাদুজ্জামান নূর * ওয়ালটন নিয়ে এলো ভার্চুয়াল র‌্যামসহ ৮ জিবির স্মার্টফোন ‘প্রিমো আর টেন’ * সৌদিআরবের মরুভূমিতে মাছের আকৃতি পাথর আবিস্কার * ফরিদপুরে ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি, যুবক গ্রেফতার *

  • আজ শুক্রবার, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৯ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

ফরিদপুরে সাজেদা পুত্রের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা মামলা

Faridrpur news
❏ বুধবার, অক্টোবর ২৬, ২০২২ ঢাকা

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরে হত্যার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনে ফরিদপুর-২ আসনের সাবেক সংসদ সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর কনিষ্ঠ পুত্র ও একই আসনের উপ-নির্বাচনে এমপি প্রার্থী শাহদাব আকবর চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন নগরকান্দা পৌরসভার মেয়র নিমাই চন্দ্র সরকার।

বুধবার (২৬ অক্টোবর) ফরিদপুর বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৪ নং আমলি আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়।

এই মামলার অন্য আসামিরা হলেন, ২ নং আসামি মোহাম্মদ লিয়াকত মিয়া, ৩ নং আসামি মোহাম্মদ নাসির মাহমুদ ও ৪ নং আসামি মো. শহিদুল ফকির ; তাদের সকলের বাড়ি নগরকান্দা ও সালথা উপজেলায়। এর ভিতর ১ নং আসামী শাহদাব আকবর চৌধুরী লাবু বর্তমান নগরকান্দা,-সালথা নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনে আগামী ৫ই অক্টোবর নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে।

বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৪ নং আমলী আদালতে দায়ের করা মামলার বিবরণ সূত্রে জানা যায়, বিগত ১৭ই অক্টোবরের জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. ফারুক হোসেনের পক্ষে কাজ করেন নিমাই চন্দ্র সরকার। আর এমপি প্রার্থী লাবু চৌধুরী সহ আসামিরা স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহাদাৎ হোসেনের পক্ষে কাজ করেন। আসামিরা স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহাদাৎ এর পক্ষে কাজ করতে এবং চশমা প্রতীকে ভোট দিতে বলেন মেয়রকে। এদিকে মেয়র নিমাই চন্দ্র প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার প্রার্থীর পক্ষে অবস্থান গ্রহণ করেন। উক্ত বিষয়ে আসামীরা তার উপর চরমভাবে ক্ষিপ্ত হয়। ‌ বিষয়টি যাহাতে প্রকাশ না পায় সে কারণে আসামিরা তাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করে। ১ নং আসামি তাকে হত্যার হুকুম দেয়। সেই মোতাবেক ঘটনার দিন অর্থাৎ ২৫ অক্টোবর উপজেলা হইতে নিজ অফিসে ফেরার পথে বেলা ২:৪৭ মিনিটে বঙ্গবন্ধু পাবলিক লাইব্রেরির সামনে পৌঁছালে ১ নং আসামির হুকুমে ও ষড়যন্ত্রে পূর্ব থেকেই ২, ৩ ও ৪ নং আসামীরা পূর্ব পরিকল্পনা ভাবে তাকে খুন করার জন্য মোটরসাইকেল চাপা দিয়ে হত্যা করার জন্য জোরে মোটরসাইকেল চালিয়ে তার গায়ের উপর উঠাতে গেলে তিনি সরে যায় এবং জীবনে রক্ষা পায়। আসামিরা যেকোনো মূল্যে তাকে খুন করে ফেলবে। । ঘটনাটি সঙ্গে সঙ্গে তিনি প্রশাসন ও দলীয় বিভিন্ন স্তরে জানান বলে মামলার বিবরণে উল্লেখ করা হয়। ‌

মামলার বিষয়ে বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট বিশ্বজিৎ গাঙ্গুলি জানান, বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৪ নং আমলী আদালতে মামলাটি জমা ও ফাইল করা হয়। বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৪ নং আমলী আদালতের বিচারক ফরিদ আহমেদ বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন। আদালত অভিযোগটি নিজ আমলে নিয়ে নগরকান্দা সিআর ৩২৯/২২ ক্রমিকে রেকর্ড করেন এবং আগামী ৯ নভেম্বর মামলার অভিযোগকারী বাদি এবং সাক্ষিদের উপস্থিতিতে আদেশের জন্য পরবর্তী দিন ধার্য্য করেছেন।

এ বিষয়ে নগরকান্দা পৌর মেয়র নিমাই সরকার অভিযোগ করে জানান, তাকে হত্যা করে ফেলা হবে বলে আসামীরা হুমকি দিচ্ছেন। এ ঘটনার পর বিষয়টি তিনি প্রশাসন ও দলের বিভিন্ন স্তরে জানিয়েছেন।

এব্যাপারে জানতে লাবু চৌধুরীর সাথে মোবাইলে বার বার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি মোবাইল রিসিভ না করায় বক্তব্য পাওয়া যায়নি।