• আজ রবিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২২ ৷

সাকিবকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর রাখবে না দুদক


❏ বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৭, ২০২২ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা: ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হি‌সে‌বে জাতীয় ক্রিকেট দলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক এবং বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সা‌কিব আল হাসানের সঙ্গে চু‌ক্তি নবায়ন কর‌বে না দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)

দুদকের অনুসন্ধান বিভাগের কমিশনার ড. মোজাম্মেল হক খান বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) এক প্রশ্নের জবাবে সাংবা‌দিক‌দের এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মোজাম্মেল হক বলেন, বিধি অনুযায়ী তার সঙ্গে দুদক এখনও চুক্তিবদ্ধ। কিন্তু বিভিন্ন বিষয়ে সাকিব আল হাসান এখন বিতর্কিত। কোনও বিতর্কিত মানুষের সঙ্গে দুদক নিজেকে জড়াতে চায় না। যার কারণে সাকিবকে আর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ব্যবহার করবে না দুদক।

আসন্ন আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবসের কোনও কার্যক্রমে তাকে রাখা হবে না বলেও জানিয়েছেন দুদক কমিশনার।

এর আগে গত ২০ সেপ্টেম্বর অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে রাখা হবে কি না, এ বিষয়ে সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করতে বলেছিলেন দুদক সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ২০১৮ সালে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে দুদকের চুক্তি হয়েছিল। এ ছাড়া হটলাইন ১০৬ উদ্বোধনকালেও তাঁর সঙ্গে কাজ করে দুদক।

গেল কয়েক মাস ধরে মাঠের চেয়ে মাঠের বাইরে বেশি আলোচিত সাকিব। বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের বিরুদ্ধে গুরুতর সব অভিযোগ উঠছে। জুয়া প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি, শেয়ারবাজারে কারসাজির পর নিজের বাবার নাম জালিয়াতি করার অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে।

গত আগস্টে অনলাইন জুয়াভিত্তিক প্রতিষ্ঠান বেটউইনারের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান বেটউইনার স্পোর্টসের সঙ্গে চুক্তি করে বিসিবির তিরস্কারের শিকার হয়েছিলেন সাকিব। বলা হয়েছিল—চুক্তি বাতিল না করলে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়বেন টাইগার অলরাউন্ডার। বিসিবির এমন অনড় অবস্থায় শেষ পর্যন্ত সেই চুক্তি থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন সাকিব।

একের পর এক বিতর্কের মধ্যেই নতুন করে বাবার নাম নিয়ে আবারও আলোচনায় আসেন সাকিব। মোনার্ক হোল্ডিংস লিমিটেডের ফর্মে খন্দকার মাসরুর রেজার পরিবর্তে সাকিবের বাবার নাম আসে কাজী আব্দুল লতিফ। পরে বিষয়টি ভুল করে হয়েছে বলে দাবি করা হয়।