🕓 সংবাদ শিরোনাম

নীলফামারীতে ধর্ষণ মামলায় প্রধান শিক্ষক জেল হাজতে * দরিদ্র মানুষ না খেয়ে মরবে না: পরিকল্পনা মন্ত্রী * চট্টগ্রামে প্রধানমন্ত্রীর উপহার, ২৯ প্রকল্প ও ৪ ভিত্তিপ্রস্তর * মিরাজের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের অবিশ্বাস্য জয় * ফুলবাড়ীতে গাঁজাসহ এক নারী গ্রেফতার * সৌদিতে পাচারকালে ২৪ লাখ ইয়াবা আটক * ভালুকা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে আলোচনার শীর্ষে জামাল * দুই বছর আগে হস্তান্তর হওয়া মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ অযত্নে অবহেলায় পরিত্যক্ত প্রায় * ফরিদপুর মেডিকেল হাসপাতালে বাড়ছে চুরি-ছিনতাই, নিরব হাসপাতাল প্রশাসন * নীলফামারীতে ট্রাকের ধাক্কায় ও ট্রেনে কাটা পড়ে শিক্ষার্থীসহ নিহত ২ *

  • আজ রবিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৪ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

বিএনপির আন্দোলনে বাধা দিতে নিষেধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী: কাদের

ওবায়দুল কাদের
❏ রবিবার, অক্টোবর ৩০, ২০২২ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা: বিএনপির আন্দোলনে বাধা দিতে প্রধানমন্ত্রী নিষেধ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বলেছেন, বিএনপি আন্দোলন করলে আওয়ামী লীগের কোনো অসুবিধা নেই। তবে আগুন সন্ত্রাস করলে জবাব দেয়া হবে।

আজ রোববার সকালে আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিল উপলক্ষে রাজধানীর ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, গত ১৪ বছর ধরে বিএনপির আন্দোলন দেখলাম। বিভিন্ন নির্বাচনেও তাদের ভূমিকা দেখলাম। দেশবাসী কী দেখলো, তাদের নিজেদের দলের চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দয়ায়-মহানুভবতায় মুক্তি পেয়ে বাসায় আছেন। বিএনপির কোনো অবদান এখানে আছে? বিএনপি দর্শনীয়, কার্যকর একটি বিক্ষোভ সমাবেশও কি বেগম জিয়ার জন্য করতে পেরেছে?

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তাদের আন্দোলন করতে দাও। কোনো প্রকার বাধা-বিঘ্ন আওয়ামী লীগ সৃষ্টি করেনি। পরিবহন ধর্মঘট; পরিবহনের লোকেরা তাদের ভয় পায়, আমরা কী করবো! পরিবহনে আওয়ামী লীগও আছে, বিএনপিও আছে, জাতীয় পার্টিও আছে—সবাই আছে। মালিক সমিতির প্রেসিডেন্ট জাতীয় পার্টির, সেক্রেটারি আওয়ামী লীগের। শ্রমিক ফেডারেশনে প্রেসিডেন্ট আওয়ামী লীগের, সেক্রেটারি বাসদ। ভাইস প্রেসিডেন্ট শিমুল বিশ্বাস, তিনি কোন দলের? তাকে প্রশ্ন করুন, পরিবহন ধর্মঘট কেন? কত ড্রাইভার-কন্ডাকটার পুড়িয়ে মেরেছে! শত শত গাড়ি ভাঙচুর করেছে। বিএনপিকে দেখলে, তারা হৈহৈ রৈরৈ শুরু করলে এরা তো ভয় পায়। আবার যদি পুরনো সন্ত্রাস ফিরে আসে! সে জন্য তারা হয়তো বন্ধ করেছে, যেটা তারা বলছে—বলেন কাদের।

আওয়ামী লীগ আবারও ভোঁতা অস্ত্র ব্যবহার করছে; তারা আবারও জঙ্গিবাদ ও অগ্নিসন্ত্রাসের কথা বলছে—বিএনপির এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কাদের বলেন, এটা একেবারে ভোঁতা হয়ে গেছে এমন নয়। এখনো জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িক শক্তি ছাড়া বিএনপির সভা-সমাবেশও অচল। এখনো তারা সক্রিয় এবং এই জঙ্গিবাদ বিএনপির হাতে সৃষ্টি। সাম্প্রদায়িক শক্তির তারা প্রধান পৃষ্ঠপোষক। সেটা আগেও ছিল, এখনো আছে। ভোঁতা কার্যক্রমে দেখা যাবে।

তিনি বলেন, আগুন সন্ত্রাস করতে আসুক, মাঠে আসুক, জনগণ প্রস্তুত, জনগণকে সঙ্গে নিয়েই প্রতিরোধ করা হবে। আগুন সন্ত্রাস করতে দেওয়া হবে না বাংলাদেশের মাটিতে। আন্দোলন করুক আমাদের আপত্তি নেই। আমাদের কজন নেতা বিএনপির আমলে ঘরে থাকতে পেরেছে? বিএনপির সব নেতা ঘরে থাকে। এয়ার কন্ডিশনার রুমে থাকেন, বক্তৃতা করেন। আমাদের ঘরে থাকতে দেয়নি। আমাদের দলীয় কার্যালয়ের বারান্দায় একুশে ফেব্রুয়ারির আলোচনা সভা করতে দেয়নি। ৩ দিনব্যাপী আলোচনা সভা বিএনপি বাধা দিয়ে পণ্ড করে দিয়েছে। এখন তারা তাদের অফিসের সামনে বড় বড় সমাবেশ করে। প্রায় প্রতিদিনই করে।