আর একটু হলেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলতাম: পাপন


❏ রবিবার, অক্টোবর ৩০, ২০২২ খেলা

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক: দম বন্ধ হয়ে যাওয়ার মতো অবস্থা হয়তো বাংলাদেশের প্রতিটি ক্রিকেটপ্রেমীর। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৪ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল সাকিব আল হাসান বাহিনী। কিন্তু পরে রিভিউয়ে দেখা গেল মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের শেষ বলটি ‘নো’ হয়েছে। যে কারণে আবার মাঠে নামতে হয় বাংলাদেশকে, পরে টাইগাররা পায় ৩ রানের জয়।

এমন শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচ দেখে অবাক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তিনি বলেন, ‘আর একটু হলে জ্ঞানই হারিয়ে ফেলতাম।’

বাংলাদেশের ম্যাচ শেষে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন পাপন। শুধু নিজে না, মজার ছলে তিনি বলেন, ‘দর্শকদের হার্ট অ্যাটাক হতে পারে। পাপনের ভাষ্য, এ রকম যদি হয়, তাহলে কত দর্শকের যে হার্ট অ্যাটাক হবে তার ঠিক নেই। এটা টু মাচ। আর একটু হলে তো আমি জ্ঞানই হারিয়ে ফেলতাম।’

বাংলাদেশ দলে টি-টোয়েন্টিতে যে সমস্যা, তা ক্রিকেটপ্রেমীদের মতো বোর্ড প্রধানেরও জানা। সেই সমাধান এখনো করতে না পারার অস্বস্তি তার কণ্ঠে,‌ ‘যে সমস্যা টি-টোয়েন্টিতে রয়েছে আমাদের সেটা থেকে বের হতে পারছি না। সে সমস্যা এখনো রয়ে গিয়েছে। তারপরেও জিতেছে ভালো।’

খানিকটা অতৃপ্তি থাকলেও কিছুটা খুশিও তিনি,‘জিতলে তো খুশি লাগবেই। যেটা বলছিলাম, জিতলে তো ভালো লাগবেই। যে অবস্থা, আমরা আসলে এ ধরনের অনেকগুলো ম্যাচ বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে লাস্ট ৩ ওভারে ব্যাটিং এবং বোলিংয়ে একেবারেই ভালো করছি প্রশ্নই ওঠে না। খুবই খারাপ অবস্থা। আমরা শেষ ৩ ওভারে রান ও পাচ্ছি না, আবার প্রচুর রানও দিয়ে দিচ্ছি।’

অবশ্য ২০ ওভারের ক্রিকেটে কাউকে আলাদা করে ফেভারিট বলতে নারাজ নাজমুল হাসান পাপন। তার স্পষ্ট কথা, ‘সবসময় মনে রাখতে হবে টি-টোয়েন্টিতে নামিবিয়া, স্কটল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড- এরা প্রত্যেকেই কিন্তু শক্তিশালী। জিম্বাবুয়ে টি-টোয়েন্টিতে দেখেছেন এর আগে পাকিস্তানের সঙ্গে জিতেছে। এটা একটা অবিশ্বাস্য জয়। ইংল্যান্ড হেরে গিয়েছে আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে। আমার কথা হচ্ছে এই ফরম্যাটটাই এ রকম। ওরা কিন্তু ফোকাস করে একটা ফরম্যাটেই, উপরে যে দলগুলোর কথা বললাম, এরা শুধু টি-টোয়েন্টি খেলে। সো ওদের সঙ্গে খেলাটাকে হালকা করে নেওয়ার কিছু নেই।’

এখন সামনে ভারত-পাকিস্তান। অ্যাডিলেডে ম্যাচ দুটো খেলার আগে পাপন নিজের লক্ষ্যের কথাও মনে করিয়ে দিলেন, ‘টুর্নামেন্টের আগে বলেছিলাম আমাদের তিনটা ম্যাচ জেতা উচিত ছিল। তিনটি ম্যাচ জিততে পারলে আমি খুশি। এখন পর্যন্ত দুটো হয়েছে, একটা বাকি রয়েছে। পাকিস্তান-ভারত যে কেউ হতে পারে।’

তার মানে ভারত অথবা পাকিস্তান যে কোন একটা দলকে হারাতে পারলেই খুশি হবেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট। যদিও এর আগে বলেছেন, এই বিশ্বকাপ তার ভাবনায় নেই, ২০২৪ সালের দলটাই ঠিক করতে চান তিনি!