ভুল নামে সনদ আর ক্রেস্ট দিয়ে শিক্ষা সপ্তাহের পুরস্কার প্রদান জেলা শিক্ষা অফিসের

Panchagar news
❏ রবিবার, অক্টোবর ৩০, ২০২২ রংপুর

নাজমুস সাকিব মুন, পঞ্চগড় প্রতিনিধি: পঞ্চগড়ে ভুল নামে সনদ আর ক্রেস্ট দিয়ে শিক্ষা সপ্তাহের পুরস্কার প্রদান করেছে জেলা শিক্ষা অফিস।

রবিবার (৩০ অক্টোবর) সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসন ও জেলা শিক্ষা অফিসের আয়োজনে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ও বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ প্রতিযোগিতা-২০২২ এর জেলা পর্যায়ের শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার ও ক্রেস্ট বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক জহুরুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার হিসেবে ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেন। অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বললে তারা জেলা শিক্ষা অফিসের অব্যবস্থাপনা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ ক’জন শিক্ষার্থী জানান, দীর্ঘ দিন পরে ক্রেস্ট এবং সনদ হাতে পেলেও সেগুলোর অনেকগুলোর নাম ভুলে ভরা।

দেবীগঞ্জ উপজেলার ৬ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৩ শিক্ষার্থীর নাম ভুল ভাবে লেখা হয়েছে। এতে শিক্ষার্থীরা মনঃক্ষুণ্ণ হয়ে বলেন, আমরা দীর্ঘদিন পরে ক্রেস্ট এবং সনদ হাতে পেলাম। এতদিন সময় নিয়েও আমাদের নাম ভুল করে লেখা হয়েছে। সনদে নামের ভুলের কারণে আমরা কোথাও সেগুলো কাজে লাগাতে পারবো না। ক্রেস্ট এবং সনদ আমাদের যোগ্যতার প্রমাণ। আর আয়োজকরা সতর্কতা অবলম্বন না করে সেখানেই ভুল করলেন।

জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে দেবীগঞ্জের দুই শিক্ষার্থী মো. মুয়াজ হোসাইন এবং রওজাতুন নাঈম তাহসিন উপজেলা, জেলা এবং বিভাগীয় পর্যায় অতিক্রম করে জাতীয় পর্যায়ে প্রতিযোগিতা করেছিলেন কিন্তু তারা দুঃখ প্রকাশ করে জানায়, তাদের সকল ডকুমেন্ট জমা দেওয়ার পরেও তাদের নাম ভুল করেছে ।

কলেজ শিক্ষার্থী মো. সিরাতুল মোস্তাকিম জানায়, জেলা শিক্ষা অফিসের অবহেলার কারণে তার নামে ভুল হয়েছে। সে জেলায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী হয়েছে তার মানে তাকে সকল শিক্ষাগত যোগ্যতার কাগজ জমা দিতে হয়েছে। এর পরেও ভুল দেখে সে মানসিক ভাবে বিভ্রান্তিতে পড়েছে।

সংশোধনের জন্য জিজ্ঞেস করলে প্রথমে শিক্ষা অফিসের কর্তারা জানান এক ঘণ্টার মধ্যে সংশোধন করে দিবেন কিন্তু পরক্ষণেই তারা তিন দিনে পরে যোগাযোগ করতে বলেন। এমন আয়োজনে এমন ভুল সত্যি দুঃখজনক।

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শাহীন আক্তার জানান, বিজয়ীদের নামের তালিকা সংশ্লিষ্ট মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে প্রেরণ করা হয়েছে। আবেদনকারীরা নাম ভুল করলে আমাদের কিছু করার নেই। তারা যা দিয়েছেন সেভাবেই প্রিন্ট করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে আমরা নাম সংশোধন করে পুনরায় ক্রেস্ট ও সনদ প্রদান করব।