• আজ সোমবার, ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৮ নভেম্বর, ২০২২ ৷

বান্দরবান ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ল


❏ সোমবার, অক্টোবর ৩১, ২০২২ চট্টগ্রাম

সময়ের কণ্ঠস্বর, বান্দরবান: বান্দরবানের রুমা রোয়াংছড়ি থানচি ও আলিকদম উপজেলায় পর্যটক ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা ৪ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। রোববার (৩০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরিজি স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে গত ১৮ অক্টোবর পাহাড়ে যৌথ বাহিনীর জঙ্গিবিরোধী অভিযানের কারণে পর্যটকদের নিরাপত্তার স্বার্থে রুমা ও রোয়াংছড়ি উপজেলায় অনির্দিষ্টকালের জন্য পর্যটক ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে স্থানীয় প্রশাসন।

পরে থানচি ও আলিকদম উপজেলায় জঙ্গিদের উপস্থিতির তথ্য পাওয়ায় সেনাবাহিনীর অনুরোধে পর্যটকদের নিরাপত্তার কথা ভেবে ২৩ অক্টোবর থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত থানচি ও আলিকদম উপজেলায়ও পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে প্রশাসন।

৩০ অক্টোবর সে নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার কথা থাকলেও রোববার সন্ধ্যায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত এ চার উপজেলায় পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বান্দরবান জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের বেঞ্চ সহকারী সুমন পাল বলেন, ‘সন্ত্রাসবিরোধী যৌথ বাহিনীর অভিযান ও সন্ত্রাসীদের তথ্য সংগ্রহের চলমান অভিযানে নিরাপত্তা বিবেচনায় থানচি, আলীকদম, রুমা ও রোয়াংছড়ি উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমণে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আগামী ৪ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।’

এই নিষেধাজ্ঞার কারণে রোয়াংছড়ি উপজেলার দেবতাকুম, শীলবান্ধা ঝরনা, শিপ্পি পাহাড়, রুমা উপজেলার রহস্যময় বগা লেক, রাইক্ষ্যংপুকুর লেক, ক্যাওক্রাডং, তাজিংডং, জাদীপাই ঝরনা, তিনাপ সাইতার, রিজুক ঝরনা, থানচি উপজেলার নাফাকুম, অমিয়কুম, বড়পাথর, রেমাক্রী, বাদুরগুহা, আন্ধারমানিক, বাকলাই ঝরনা এবং আলীকদম উপজেলার দামতুয়া ঝরনা, ডিম পাহাড়, করুকপাতা ঝরনাসহ চারটি উপজেলার আশপাশের দর্শনীয় স্থানগুলোতে ভ্রমণ করতে পারবে না পর্যটকরা।

এ বিষয়ে বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি বলেন, ‘সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান ও তথ্য সংগ্রহের জন্য নিরাপত্তার স্বার্থে রুমা, রোয়াংছড়ি, থানচি ও আলীকদম উপজেলায় পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞার সময়সীমা আগামী ৪ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। পর্যটকদের নিরাপত্তা বিবেচনায় পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।’