• আজ রবিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২২ ৷

পাবনায় হত্যা মামলায় ২১ জনের যাবজ্জীবন


❏ সোমবার, অক্টোবর ৩১, ২০২২ দেশের খবর, রাজশাহী

সময়ের কণ্ঠস্বর, পাবনা: পাবনা সদর উপজেলার চর তারাপুরে সালাম নামে এক কৃষককে হত্যার দায়ে ২১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (দ্বিতীয় আদালত) আদালতের বিচারক ইসরাত জাহান মুন্নী এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডিতরা হলো—সদর উপজেলার ভাদুরীডাঙ্গী গ্রামের শাহজাহান মোল্লা, মিনহাজ, তিন ভাই নবী শেখ, সুলতান মাহমুদ পক্ষী ও মোক্তার, বাছেদ শেখ, আইয়ুব খাঁ, আসলাম, লতিফ মোল্লা, ছোবাই মোল্লা, কালাম, মহির মোল্লা, দুই ভাই মোহাম্মদ আলী মোল্লা ও রেজাউল মোল্লা, বাবু মোল্লা, সুজানগর উপজেলার চর ভবানীপুর গ্রামের দুই ভাই মোকছেদ মোল্লা ও বারেক মোল্লা, করিম মোল্লা, ভবানীপুর কাচারী মাঠ সংলগ্ন এলাকার খোকন, মানিকদিয়ার গ্রামের রফিক এবং সদর উপজেলার কোলচুরি গ্রামের বাবলু।

তাদের মধ্যে বারেক, মিনহাজ, বাবলু, বাছেদ শেখ, লতিফ মোল্লা ও ছোবাই পলাতক। বাকিরা রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ১৯৯৮ সালের ৭ নভেম্বর জমিতে কাজ করছিলেন সদর উপজেলার চর তারাপুরের কৃষক সালাম। সে সময় পূর্বশত্রুতার জেরে আসামিরা তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ঘিরে ফেলে। সালাম দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে পেছন থেকে গুলি করা হয়। মাটিতে পড়ে যাওয়ার পর তাকে আবারও গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় ২৪ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন তার ভাই জব্বার। ১৯৯৯ সালের ১ আগস্ট ২৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। বিচার চলার সময় তিনজনের মৃত্যু হয়। বাকিদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত আইনজীবী ইউসুফ আলী বলেন, ‘পরিকল্পিতভাবে কৃষক সালামকে হত্যা করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ হওয়ায় আদালত উপযুক্ত শাস্তি দিয়েছেন। আমরা এই রায়ে সন্তুষ্ট।’