• আজ রবিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২২ ৷

আবারো সবকিছু শুনতে চায় নাসরিন, নেই টাকা

Magura news
❏ মঙ্গলবার, নভেম্বর ১, ২০২২ খুলনা

মতিন রহমান, মাগুরা প্রতিনিধি: নাসরিন নাহার। বয়স মাত্র ২০ বছর। যে বয়সে হয়তো শিক্ষা জীবনে অথবা স্বামীর সংসারে থাকার কথা ছিলো! সে বয়সেই এখন থাকতে হয় পরিবারের বোঝা হয়ে। দেখে বুঝতে পারাটা অসম্ভব যে নাসরিন একজন প্রতিবন্ধী মেয়ে। হ্যা, ঠিক তাই! দুটি কানে কালা। একটি কানে কিছুই শুনতে পারেনা আর অন্য কানে কম শুনতে পায়। চিকিৎসার পেলে হয়তো কানে শুনতে পেত সে। নাসরিনের বাড়ি মাগুরা সদরের চাউলিয়া ইউনিয়নের ঘোড়ানাছ গ্রামে। তার পিতার নাম আব্দুর রহিম মিয়া। তিনি পেশায় একজন কৃষক এবং অন্যের জমিতে কাজ করে সংসার চলে তার। পরিবারে তিন কন্যা সন্তানের মধ্যে নাসরিন সবার বড়।

নাসরিনের মা জিনজিরা খাতুন জানায়, ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশোনা করেছে নাসরিন। পরবর্তীতে দুটি কানে শুনতে না পারায় পড়াশোনা বাদ দিতে হয়েছে তাকে। খাবার খাওয়া থেকে শুরু করে সংসারের কাজগুলো ইশারা দিয়ে বুঝিয়ে করাতে হয় তাকে।

শিশুকালে বাড়ির পাশে ব্রাক স্কুলে যেতে গিয়ে রাস্তায় মোটরসাইকেলের ধাক্কা লেগে তার দুটি কানে সমস্যা হয়। চিকিৎসার জন্য কিছু দিন আগে ঢাকায় নিলে ডাক্তার জানায় অপারেশন করালে অনন্ত একটি কান ভালো হতে পারে তার। তাই এখন উন্নত চিকিৎসা পেলে ও অপারেশন করানো গেলে হয়তো একটি কানে ভালোভাবে শুনতে পেতো সে। অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের মেয়ে হওয়ায় তার চিকিৎসার টাকা জোগাড় করতে পারছে না তার পরিবার। এজন্য মেয়েটির চিকিৎসায় সকলের সহযোগিতা চায় তার পরিবার।

প্রতিবেশী ইলিয়াস হোসেন বলেন, সমাজে এরকম সমস্যা নিয়ে অনেক মেয়ে পরিবারের বোঝা হয়ে বেঁচে আছে। অথচো তারা সুচিকিৎসা পেলে ভালোভাবে জীবনযাপন করতে পারে। নাসরিনের ব্যপারেও তিনি সরকার ও ব্যক্তি পর্যায়ে সব বিত্তবান ব্যক্তিদেরকে নাসরিন কে সহযোগিতার জন্য এগিয়ে আসার আহবান জানান।

এবিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান জানান, কান কম শোনা মেয়েটির বিষয়ে জানতে পেরেছি। তার প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড রয়েছে। তবুও আমরা চেষ্টা করবো তার চিকিৎসার জন্য তাকে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করার।

এদিকে মাগুরা জেলা সমাজসেবা অফিসার উপপরিচালক মো. আশাদুল ইসলাম বলেন, এই মেয়েটির সহযোগিতার জন্য আবেদন করলে সরকারি ভাবে তাকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। এধরনের সমস্যায় তারা অফিস থেকে সহযোগিতা করে থাকেন বলেও জানান তিনি।