• আজ সোমবার, ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৮ নভেম্বর, ২০২২ ৷

লোডশেডিংয়ের কারণে বড় অঙ্কের অর্থ সাশ্রয় করতে পারছি: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী


❏ বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ৩, ২০২২ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা : বিদ্যুতে লোডশেডিং ও স্পট মার্কেট থেকে এলএনজি না কেনার কারণে বড় অঙ্কের অর্থ সাশ্রয় হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বিদ্যুতে লোডশেডিং করার কারণে আমাদের বড় একটা সাশ্রয় হয়েছে। এখন আমরা যদি স্পট মার্কেট থেকে এলএনজির একটি জাহাজ কিনি, সেই জাহাজের খরচ পড়বে ১৫শ কোটি টাকা। সেই গ্যাস যদি আমি বিক্রি করি তাহলে পাব ৫৮ কোটি টাকা। ক্রয় ১৫ শ কোটি টাকা আর বিক্রি ৫৮ কোটি টাকা।

আমরা লোডশেডিং করে একটা বিরাট অর্থ সাশ্রয় করতে পারছি। স্পট মার্কেট থেকে গ্রাস ক্রয় অসম্ভব হয়ে পড়েছে।’

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে সচিবালয়ের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এ দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন—বাংলাদেশ তৈল, গ্যাস ও খনিজ সম্পদ করপোরেশনের (পেট্রোবাংলা) চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান এবং বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন কোম্পানি লিমিটেডের (বাপেক্স) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আলী।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করেছি কারকানায় বিদ্যুৎ দিয়ে আবাসিক কাতে বিদ্রুতের কিছু লোডশেড করতে।

লোডশেডিং কমে এসেছে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, দেশে ‘লোডশেডিং এখন অনেক কমে গেছে। বিশেষ করে নভেম্বর মাস থেকে আরও কমবে। আমরা লোডশেডিং থেকে বেড়িয়ে আসছি। আমরা এখন পরিকল্পনা করছি আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসে কি করব। আগামী নভেম্বরে ও ডিসেম্বরে বিদ্যুৎ ও গ্রাসের কোনো অসুবিধা হবে।’