• আজ রবিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৪ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

সোনারগাঁয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরণ করে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ২

Narayangonj news
❏ শনিবার, নভেম্বর ৫, ২০২২ ঢাকা

সুমন আল হাসান,নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের বারদি ইউনিয়নের আলগীরচর গ্রাম থেকে মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরণ করে গণ ধর্ষণের ঘটনায় দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে সোনারগাঁ থানা পুলিশ।

শুক্রবার (৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় তাদের বারদি বাজার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে তিনজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- বারদি ইউনিয়নের সেনপাড়া গ্রামের সামসুল হকের ছেলে রাকিব, নাগপাড়া গ্রামের মৃত মফিজউদ্দিনের ছেলে মোশারফ হোসেন। গ্রেপ্তারকৃতদের  আজ শনিবার সকালে নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হবে।

সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার বারদি ইউনিয়নের আলগীর চর নুরুল উগুল মহিলা মাদ্রাসার ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী। মাদ্রাসায় যাওয়া আসার পথে বারদি ইউনিয়নের সেনপাড়া গ্রামের সামসুল হকের ছেলে রাকিব, নাগপাড়া গ্রামের মৃত মফিজউদ্দিনের ছেলে মোশারফ হোসেনসহ কয়েকজন মিলে উত্তক্ত্য করতো। উত্তক্ত্যের জের ধরে ওই ছাত্রী মাদ্রাসায় যাওয়া আসা বন্ধ করে দেয়। এক পর্যায়ে তারা বাড়িতে গিয়ে ওই ছাত্রীকে বড় ধরণের ক্ষতি করার হুমকি দেয়।

গত ১ লা নভেম্বর রাত আড়াইটার দিকে ওই ছাত্রীর প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিলে রাকিবের নেতৃত্বে শাকিল ও মোশারফ মুখ চেপে ধরে ভয়ভীতি দেখিয়ে পাশ্ববর্তী দৌলরদী ছাগইল্লাপাড়া এলাকায় সেলিম মিয়ার ছেলে শাকিলের বাড়িতে তাদের দুই রুম বিশিষ্ট খালি ঘরের ভেতরে অপহরণ করে নিয়ে আটকে রাখে। পরে তারা একে একে তিনজন মিলে পালাক্রমে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরদিন সকালে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাকে ওই বাড়ি থেকে বের করে দেয়। পরে ওই মেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে ঘটনাটি তার মাকে খুলে বলে। বিষয়টি এলাকার গন্যমান্য সালিশকারীদের কাছে বিচার দাবি করলে তারা বিচারের আশ্বাস দিয়ে ঘুরাতে থাকে। তিনদিনেও এর প্রতিকার না পেয়ে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করে ওই মেয়ের বাবা। অভিযোগের পর পুলিশ সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে বারদি বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত রাকিব ও মোশারফকে গ্রেপ্তার করে।

ভূক্তভোগী ছাত্রীর বাবা বলেন, আমরা গরিব মানুষ। স্থানীয় গ্রাম্য সালিশকারীদের কাছে বিচার দাবি করলে তিনদিনেও তাদের কাছে কোন প্রতিকার পাইনি। আমি আমার মেয়ের ইজ্জত হারানোর সঠিক বিচার চাই। তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক তদন্ত মোহাম্মদ আহসানউল্লাহ বলেন, গণ ধর্ষণের অভিযোগে দুই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহন করা হয়েছে। শনিবার তাদের আদালতে পাঠানো হবে।