• আজ সোমবার, ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৮ নভেম্বর, ২০২২ ৷

নেপালে শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত ৬


❏ বুধবার, নভেম্বর ৯, ২০২২ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে নেপাল। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৬। এতে অন্তত ছয়জন নিহত হয়েছেন বলে এখন পর্যন্ত জানা গেছে। ভারতের উত্তরাঞ্চলেও কম্পন অনুভূত হয়েছে।

বুধবার (৯ নভেম্বর) দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটিতে এই ভূমিকম্প ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। নেপালের ভূতাত্ত্বিক কেন্দ্রের বরাত দিয়ে বুধবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

রয়টার্সের অংশীদার ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই জানিয়েছে, নেপালের ডোটি জেলায় ভূমিকম্পে একটি বাড়ি ধসে পড়ার পরে ছয়জনকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে।

এদিএক স্থানীয় সংবাদমাধ্যম কাঠমান্ডু পোস্ট জানায়, ভূমিকম্পটির কেন্দ্র ছিল খাপতাড ন্যাশনাল পার্কে।

ডোটি জেলা পুলিশ কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান ভোলা ভাট্টা জানিয়েছেন, ভূমিকম্পে নিহতদের মধ্যে আট বছর বয়সী একটি ছেলে, ১৩ বছরের একটি মেয়ে, ১৪ বছর বয়সী দুটি মেয়ে, একজন ৪০ বছর বয়সী নারী ও একজন ৫০ বছর বয়সী পুরুষ রয়েছেন। তারা পুরিচৌকি পল্লী পৌরসভার গাইরা গাঁয়ের বাসিন্দা।

শক্তিশালী ভূমিকম্পটি সুদূর কাঠমান্ডু এবং ভারতের কিছু অংশেও অনুভূত হয়েছে। এর প্রভাবে ডোটিতে বেশ কিছু ঘরবাড়ি ধসে পড়েছে। ভুক্তভোগীদের সবাই ধসে পড়া ঘরের ধ্বংসাবশেষের নিচে চাপা পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন।

ভাট্টা জানিয়েছেন, আহত পাঁচজনকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে, নেপালে এই ভূমিকম্পের মাত্রা নিয়ে বেশ বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে। যদিও স্থান, সময়, এমনকি সংস্থাভেদে ভূমিকম্পের মাত্রায় ভিন্নতার উদাহরণ নতুন নয়। তবে মঙ্গলবারের ভূমিকম্পটি নিয়ে বিভ্রান্তির মাত্রা কিছুটা বেশি।

এনসিএসের বরাতে ভারতীয় বার্তা সংস্থা এএনআই বলছে, ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৩। তবে শুরুতে এর মাত্রা ৫ দশমিক ৩ বলে জানানো হয়েছিল।

আবার মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার (ইউএসজিএস) বরাতে সিএনএন বলছে, ভূমিম্পটির মাত্রা ছিল ৫ দশমিক ৬ এর উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে ১৫ দশমিক ৭ কিলোমিটার গভীরে।

আবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, ভূমিকম্পের মাত্রা ৬ দশমিক ৬।