• আজ রবিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২২ ৷

বৃদ্ধা মাকে মারধর, ছেলে ও পুত্রবধূর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ


❏ বুধবার, নভেম্বর ৯, ২০২২ দেশের খবর, রংপুর

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার কেরানীপাড়া গ্রামের আছমা বেগম (৫৫) নামে এক বৃদ্ধাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে তার নিজ সন্তানের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি।

বুধবার (৯ নভেম্বর) বিকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন কালীগঞ্জ থানার ওসি গোলাম রসুল।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে ভুক্তভোগী বৃদ্ধা আছমা বেগম বাদী হয়ে ছেলে মফিজুল ইসলাম ভোলা (৩৫) ও পুত্রবধূ শাম্মী আক্তার (২৭) এর নামে থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ওই এলাকার আব্দুল লতিফের মৃত্যুর পর তার ছোট ছেলে মফিজুল ইসলাম ভোলা পৈতৃক সম্পত্তি নিয়ে প্রায়ই সময় তার বৃদ্ধা মা, বাক প্রতিবন্ধী ভাই মোরশেদুল ইসলাম ও ছোট বোন লামিয়া আক্তারকে বিভিন্ন ধরণের ভয়-ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে।

এমতাবস্থায় গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটার দিকে বৃদ্ধা আছমা বেগম তার স্বামীর সম্পত্তি সকলের মাঝে সঠিকভাবে ভাগবন্ঠন করে দিতে চাইলে এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে মফিজুল ইসলাম ভোলা। এসময় সে তার বৃদ্ধা মাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এর এক পর্য়ায় সে লোহার রড দিয়ে তার মা ও ভাইবোনের ব্যবহৃত বাথরুমের দরজা ও টিউবওয়েল ভেঙ্গে ফেলে। এতে বৃদ্ধা বাধা দিতে চাইলে তাকে মারধর করাসহ প্রতিবন্ধি ভাই ও ছোট বোনকে খুন ও জখম করার হুমকি দেন।

এলাকাবাসীর সহযোগিতায় বৃদ্ধা ওইদিন রাতে কালীগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। যদিও এখন পর্যন্ত অভিযুক্ত ছেলেকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ।

বৃদ্ধা আছমা বেগম বলেন, স্বামী মারা যাবার পর জমিজমা নিয়ে প্রায়ই সময় মফিজুল ইসলাম ভোলা তাকে মারধর করে। তাকে কোন খাবার দেয়না। মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এ বিষয়ে তিনি কাঁদতে কাঁদতে ছেলের উপযুক্ত শাস্তি দাবী করেন।

এ বিষয়ে কালিগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্য এটিএম গোলাম রসুল বলেন, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত পুর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।