• আজ সোমবার, ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৮ নভেম্বর, ২০২২ ৷

সালথায় ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছিল যুবকের মরদেহ

Faridpur news
❏ বুধবার, নভেম্বর ৯, ২০২২ ঢাকা

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় প্রেমিকার সঙ্গে অভিমান করে ঘরের ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে হৃদয় রায় (১৬) নামের এক কিশোর আত্মহত্যা করেছে।

বুধবার (৯ নভেম্বর) সকালে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছেন।

এর আগে মঙ্গলবার (০৮ নভেম্বর) দিনগত রাত ১০ টার দিকে উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের আগুলদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত হৃদয় আগুলদিয়া গ্রামের কানাই লাল রায়ের একমাত্র ছেলে। সে পেশায় কামার ছিল।

নিহতের পরিবার জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হৃদয়ের মা পাশের গৌড়িদয়া গ্রামে একটি ধর্মীয় গানের অনুষ্ঠানে যান। আর বাবা বাড়ির সামনে দোকানে চা খেতে যায়। ওই দোকানে সন্ধ্যার পর হৃদয়ও আড্ডা দিত। তবে ১০ টা বেজে গেলেও হৃদয়কে দোকানে আসতে না দেখে তার বাবা বাড়িতে গিয়ে দেখেন ঘরের মধ্যে সাউন্ডবক্সে গান বাজছে। ঘরের একটি ছিদ্র দিয়ে দেখেন ছেলের মরদেহ ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে। পরে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ফ্যান থেকে মরদেহ নামায় প্রতিবেশীরা।

প্রতিবেশীরা জানান, ছয়মাস আগে একই গ্রামে এক মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যায় হৃদয়। পরে স্থানয়ীরা তাদের উদ্ধার করে মিমাংসার মাধ্যমে মেয়েকে তার পরিবারের হাতে আর ছেলেকে তার পরিবারের হাতে তুলে দেয়। এরপর আবারও ওই মেয়ের সঙ্গে হৃদয়ের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ঘটনার আগে হৃদয় ফোনে ওই মেয়ের সঙ্গে কথাকাকাটি করে ঘরের ভিতরে গিয়ে সাউন্ডবক্সে গান ছেড়ে দিয়ে ফ্যানের সাথে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে ঘটনার পর থেকে অজ্ঞান হয়ে বাড়ির ওঠানে পড়ে আছে মা-বাবা।

সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শেখ সাদিক বলেন, খবর পেয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। হৃদয় প্রেমঘটিত কারণে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।