• আজ বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৭ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

আবারও সরকার গুম-খুনের নাটক শুরু করেছে: রিজভী


❏ বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১০, ২০২২ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা: আবারও সরকার গুম-খুনের নাটক শুরু করেছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, অতীতে যেভাবে ভোট ডাকাতি করে তিনটি জাতীয় নির্বাচন করেছে, তেমনি বর্তমানেও একই পথে নেমেছে আওয়ামী সরকার।

বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

রিজভীর দাবি, বিএনপির সব পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলা দায়ের, পাইকারি হারে গ্রেপ্তার ও রিমান্ডে নির্যাতন চালিয়ে দেশটাকে নরকে পরিণত করেছে সরকার। জামিন বাতিল করে গতকাল (বুধবার) বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কামরুজ্জামান রতনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, যুবদল নেতা আলী আকবর চুন্নু ও স্বেচ্ছাসেবক দলের রফিক হাওলাদার, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহম্মেদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক সাবেক কমিশনার হারুন উর রশীদসহ অনেক নেতাকর্মীকে সম্প্রতি গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এখন প্রতিদিনই আমাদের নেতাদের তুলে নিয়ে কয়েকদিন গুম রাখার পর গ্রেপ্তার দেখানো হচ্ছে। জামিন বাতিল করে জেলে পুরছে। সারা দেশে প্রতিদিন বিএনপির নেতাদের বাড়ি বাড়ি অভিযান চালানো হচ্ছে।

বিএনপির সিনিয়র এ নেতা বলেন, এক যুগ আগে মারা যাওয়া ফরিদপুরের সাবেক কমিশনার ও শহর বিএনপির সভাপতি বাচ্চু মিয়া আলীর বাড়িতে মঙ্গলবার মধ্যরাতে পুলিশ অভিযান চালিয়েছে। মুন্সিগঞ্জ জেলায় বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য, যিনি এক বছর আগে মৃত্যুবরণ করেছেন তার বাড়িতে সাদা পোশাকধারী লোকজন গেছে। তাদের বাড়িতে অভিযানকালে নারীদের সঙ্গে ন্যক্কারজনক আচরণ করেছে পুলিশ।

ফরিদপুরে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশের আগে গণগ্রেপ্তার করতে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বাড়িতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে বলে দাবি করেন রিজভী। তিনি বলেন, এলাকায় এখন আতঙ্ক বিরাজ করছে, নেতাকর্মীরা এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, প্রতিটি বিভাগীয় গণসমাবেশকে বানচাল করার জন্য যানবাহন-পরিবহন বন্ধ করে দিচ্ছে। পথে পথে হামলা করছে। গ্রেপ্তার মামলা করছে। তাতে কি শেখ হাসিনা রুখতে পারবে এই জনতার সাগরে ওঠা টালমাটাল জোয়ার। বাংলাদেশে স্বৈরতন্ত্রের অনুকুল সমাজভূমি বলে কিছু নেই।

তিনি বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাংগঠনিক দক্ষতা ও অসামান্য নেতৃত্বের কারনে সারাদেশে একনায়কতান্ত্রিক ফ্যাসীবাদী সরকারের বিরুদ্ধে জনমত তৈরি হয়েছে। তার নেতৃত্বে জনগণের স্বতঃফূর্ত অংশগ্রহণে আন্দোলন এখন গণমুখী। জনতার হাতে স্টীয়ারিং। মাফিয়া সরকার ও তাদের পোষ্যরা কোনক্রমেই রুখতে পারবে না এই গণজোয়ার। জনগণের লক্ষ্য বিজয়। সে লক্ষ্যে পৌঁছাতে যেখানে যে বাধা আসবে তা প্রতিহত করেই এগিয়ে যাবে তারা। এবার আন্দোলনের সুনামি হবে। সেই সুনামিতে সরকার ভেসে যাবে।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাদের গ্রেপ্তার এবং মিথ্যা মামলা দায়েরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে তাদের মামলা প্রত্যাহারসহ নিঃশর্ত মুক্তির জোর আহ্বান জানাচ্ছি। আওয়ামী দুস্কৃতিকারিদের কর্তৃক নেতাকর্মীদেরকে আহত করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি এবং অবিলম্বে সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি। আহত নেতাকর্মীদের সুস্থতা কামনা করছি।