• আজ শুক্রবার, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৯ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

পরীমণির স্ট্যাটাসের পর মুখ খুললেন মিম


❏ বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১০, ২০২২ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক: নির্মাণের মাধ্যমে ইতিবাচক হিসেবে আলোচনায় ছিলেন তরুণ পরিচালক রায়হান রাফি। ‘পোড়ামন-২’ ও ‘দহন’ সিনেমার মাধ্যমে পরিচালক হিসেবে শক্ত অবস্থানে জায়গা করে নেন। কিন্তু এরই মধ্যে অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিমকে নিয়ে ‘দামাল’ সিনেমা করার পর থেকে অভিনেতা শরিফুল রাজের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্কের গুঞ্জন ওঠে!

অভিনেতা শরিফুল রাজের স্ত্রী ও অভিনেত্রী পরীমণি ‘রাজ ও মিম’-এর এই প্রেমের বিষয়ে বিরক্ত প্রকাশ করে নির্মাতা রায়হান রাফিকে ‘দালাল’ হিসেবেও উল্লেখ করেন। একই সঙ্গে নায়িকা মিমকে লক্ষ্য করে বলেন, ‘নিজের জামাইকে নিয়ে সন্তুষ্ট থাকা উচিত ছিল।’

এদিকে মিমকে নিয়ে সোশ্যালেসহ নানা মাধ্যমে নেতিবাচক মন্তব্য ও রাজের সঙ্গে বিবাহবহির্ভুত সম্পর্ক রয়েছে—কি নেই, তা নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা চলছে। এমনকি বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) দুপুর গড়িয়ে বিকেলের দিকে বিষয়টি যেন রূপ নিলো ‘টক অব দ্যা কান্ট্রি’তে।

পরীমণির এই স্ট্যাটাসের পরে ফেসবুকে ভেরিফাইড পেজে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন বিদ্যা সিনহা মিম। সেখানে নিজের বক্তব্য তুলে ধরেন নায়িকা।

মিম তার পোস্টে লেখেন, ‘পরাণ’ ও ‘দামাল’ সিনেমার আকাশছোঁয়া সাফল্য আমাকে স্বার্থহীন ভালোবাসায় ভাসাচ্ছে। আমি আপ্লুত, অভিভূত। বলতে পারি, জীবনের সেরা সময় পার করছি। ঠিক এই সময়ে একটা পক্ষ আমার পথচলায় ঈর্ষান্বিত হয়ে, আমাকে থামিয়ে দিতে, আমাকে জড়িয়ে নানা ধরণের কুৎসা রটানোর চেষ্টা চালাচ্ছে।

মিমের ভাষায়, ‘পরাণ’ ও ‘দামাল’ যে ভালোবাসা আমাকে দিচ্ছে, দেড় দশক আগে ঠিক একইরকম ভালোবাসায় সবাই আমাকে লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার বানিয়েছে। সবার ভালোবাসাকে গুরু দায়িত্ব হিসেবে মেনে নিয়ে আমি আমার পেশাদার অভিনয় জীবন গড়ে তোলা চেষ্টা করেছি, করে যাচ্ছি, আগামীতেও করে যাব।

বাবার আদর্শ আর মায়ের শেখানো সততার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি কাজ করছি বাংলাদেশে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক শিশু তহবিলের (ইউনিসেফ) জাতীয় শুভেচ্ছাদূত হিসেবে। শিক্ষক বাবার আদর্শ ও মায়ের শেখানো সততাকে সঙ্গী করে দারুণ কিছু কাজ করার চেষ্টার মধ্য দিয়ে ভক্ত-শুভাকাঙ্খিসহ সবার মন জয়ের চেষ্টা করছি প্রতিনিয়ত। কখনোই নিজের পেশাদার জীবনের সঙ্গে এমন কিছু যুক্ত করতে দেইনি যা আমার পথচলাকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে পারে।

মনগড়া, মিথ্যা, বানোয়াট কথায় বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বানও জানান মিম, আমি জানি আমার পারিবারিক শিক্ষা ও মূল্যবোধ কী, বেড়ে ওঠেছি কোন ধরণের পারিবারিক আবহে, আমার চারপাশটা কেমন– এখন যে বা যারা কোনো ধরণের প্রমাণ ছাড়াই আমাকে নিয়ে ভিত্তিহীন কথা বলছে, তাদের প্রতি নিন্দা জানানোর ভাষা জানা নেই। তবে এসবের বাড়াবাড়ি হলে আমি অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে দেশের প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করব। ভক্ত-শুভাকাঙক্ষী ও ভালোবাসার মানুষদের এটাও বলতে চাই, কারও কোনো ধরণের মনগড়া মিথ্যা বানোয়াট কথায় আপনারা বিভ্রান্ত হবেন না।

সবশেষ সংবাদকর্মীদের উদ্দেশ্যে এই নায়িকার বলেন, আমার এই দীর্ঘ পথচলায় সংবাদকর্মী ভাইয়েরা সবসময় আন্তরিক সহযোগিতা করেছেন। আপনারাই আমার যাবতীয় কাজ, ভাবনা-চিন্তা সঠিক ও সুন্দরভাবে ভক্ত-শুভাকাঙক্ষীসহ দেশ-বিদেশের সবার কাছে তুলে ধরেছেন। তাই আপনাদের সবার কাছে অনুরোধ, কোনো ধরণের সত্যতা যাচাই বাছাই না করে বিভ্রান্তিকর কোনো খবর ছড়াবেন না। কোনো ইউটিউব কিংবা পোর্টাল যদি আমাকে জড়িয়ে কোনো ধরণের ভিত্তহীন খবর ছড়ানোর চেষ্ট করে তাহলে সংশ্লিষ্ট সবার বিরুদ্ধেও প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হতে হবো। আপনাদের ভালোবাসার বিদ্যা সিনহা মিম।