🕓 সংবাদ শিরোনাম

চট্টগ্রামে প্রধানমন্ত্রীর উপহার, ২৯ প্রকল্প ও ৪ ভিত্তিপ্রস্তর * মিরাজের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের অবিশ্বাস্য জয় * ফুলবাড়ীতে গাঁজাসহ এক নারী গ্রেফতার * সৌদিতে পাচারকালে ২৪ লাখ ইয়াবা আটক * ভালুকা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে আলোচনার শীর্ষে জামাল * দুই বছর আগে হস্তান্তর হওয়া মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ অযত্নে অবহেলায় পরিত্যক্ত প্রায় * ফরিদপুর মেডিকেল হাসপাতালে বাড়ছে চুরি-ছিনতাই, নিরব হাসপাতাল প্রশাসন * নীলফামারীতে ট্রাকের ধাক্কায় ও ট্রেনে কাটা পড়ে শিক্ষার্থীসহ নিহত ২ * আমরা উন্নয়ন করি, বিএনপি মানুষ খুন করে: প্রধানমন্ত্রী * প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় কক্সবাজারবাসী *

  • আজ রবিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৪ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

পৌনে দুইশত বছরের পুরনো মন্দিরে চুরি, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ক্ষোভ প্রকাশ


❏ শনিবার, নভেম্বর ১২, ২০২২ রংপুর

নাজমুস সাকিব মুন, পঞ্চগড় প্রতিনিধি: পঞ্চগড়ে পৌনে দুইশত বছরের পুরনো ঐতিহাসিক শ্রী শ্রী গোলক ধাম মন্দিরের দরজার হেজবল কেটে রাতের আঁধারে দুইটি রাধকৃষ্ণের বিগ্রহ চুরি হয়েছে। এছাড়াও প্রণামী বাক্সের (দান বাক্স) তালা ভেঙে বাক্সে রক্ষিত অর্থও চুরি হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্নতত্ব অধিদপ্তরের আওতাধীন মন্দিরটি জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার শালডাঙ্গা ইউনিয়নে অবস্থিত।

সরেজমিনে গিয়ে ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, মন্দিরের গেটের হেজবল কেটে মন্দির থেকে রাধাকৃষ্ণের দুইটি যুগল মুর্তি চুরি হয়েছে। এছাড়াও প্রণামি বাক্সটি মন্দিরের উত্তর দিকে তালা ভাঙা অবস্থায় পাওয়া যায়।

মন্দির কমিটির সম্পাদক যাদব চন্দ্র রায় জানান, দীর্ঘ ৩ মাস থেকে প্রণামী বাক্সটির অর্থ বের করা হয়নি, সেই হিসেবে বাক্সটি থেকে আনুমানিক ৩০ হাজার টাকা চুরি হয়েছে। চুরি হওয়া রাধাগোবিন্দের মুর্তি দুটির আনুমানিক মূল্য ৪০-৫০ হাজার টাকা হবে।

আজ শনিবার সকালে পুরোহিত ও ভক্তরা মন্দিরে পূজা দিতে এসে চুরির বিষয়টি জানতে পারেন।

এ ঘটনায় স্থানীয় সনাতন ধর্মাবলম্বীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। মন্দির কমিটির নেতারা জানান, গতকাল সন্ধ্যার পর পূজা-অর্চনা শেষ করে মন্দিরে তালা লাগিয়ে সবাই যে যার মতো বাড়িতে চলে যায়। গভীর রাতে কে বা কারা এসে এসব চুরি করে নিয়ে গেছে।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের দেবীগঞ্জ উপজেলা সাধারণ সম্পাদক হরিশ চন্দ্র রায় বলেন, মন্দির থেকে বিগ্রহ চুরির বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক, এসব প্রতিষ্ঠানে প্রশাসনের আরো বেশি নজরদারি প্রয়োজন। তবে এটি কোন ধর্মীয় প্রতিহিংসা কারনে হয়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, এটি স্রেফ চুরি, অন্য কোন বিষয় এতে সংশ্লিষ্ট নয়।

চুরি হয়ে যাওয়া মন্দির পরিদর্শন করেছেন দেবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম ফেরদৌস, দেবীগঞ্জ সার্কেল এসপি রুলা লায়লা, ওসি জামাল হোসেন।

এ বিষয়ে দেবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ জামাল হোসেন বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অপরাধী ধরতে আমরা ইতোমধ্যেই কাজ শুরু করেছি। মন্দির কমিটির পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।