🕓 সংবাদ শিরোনাম

নীলফামারীতে ধর্ষণ মামলায় প্রধান শিক্ষক জেল হাজতে * দরিদ্র মানুষ না খেয়ে মরবে না: পরিকল্পনা মন্ত্রী * চট্টগ্রামে প্রধানমন্ত্রীর উপহার, ২৯ প্রকল্প ও ৪ ভিত্তিপ্রস্তর * মিরাজের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের অবিশ্বাস্য জয় * ফুলবাড়ীতে গাঁজাসহ এক নারী গ্রেফতার * সৌদিতে পাচারকালে ২৪ লাখ ইয়াবা আটক * ভালুকা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে আলোচনার শীর্ষে জামাল * দুই বছর আগে হস্তান্তর হওয়া মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভ অযত্নে অবহেলায় পরিত্যক্ত প্রায় * ফরিদপুর মেডিকেল হাসপাতালে বাড়ছে চুরি-ছিনতাই, নিরব হাসপাতাল প্রশাসন * নীলফামারীতে ট্রাকের ধাক্কায় ও ট্রেনে কাটা পড়ে শিক্ষার্থীসহ নিহত ২ *

  • আজ রবিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৪ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

প্রতিবছর ভারত থেকে ৩ হাজার তরুণ পেশাজীবী নেবে যুক্তরাজ্য


❏ বুধবার, নভেম্বর ১৬, ২০২২ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: খাদ্যনিরাপত্তাকে প্রাধান্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্বের বৃহৎ অর্থনীতির ২০টি দেশের জোট জি-২০-এর সম্মেলন। গতকাল মঙ্গলবার বালিতে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো।

সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের মধ্যে কথোপকথন হয়েছে। নরেন্দ্র মোদি ও ঋষি সুনাকের সাক্ষাতের বিষয়টি টুইটারে নিশ্চিত করেছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়।

এদিকে নরেন্দ্র মোদি ও ঋষি সুনাকের সাক্ষাতের কয়েক ঘণ্টা পরই ব্রিটিশ সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষণা এসেছে, প্রতিবছর ভারত থেকে ৩ হাজার তরুণ পেশাজীবী নেবে যুক্তরাজ্য।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত সুনাক যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর মোদির সঙ্গে তার প্রথমবার সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হলো। আজ বুধবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে এনডিটিভি।

ব্রিটিশ সরকার এক বিবৃতিতে বলছে, ভারতই প্রথম ভিসা ন্যাশনাল দেশ হিসেবে এই সুবিধা পাচ্ছে। এর ফলে ভারতের সঙ্গে দেশটির দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এবং দুই দেশের অর্থনীতি শক্তিশালী হবে। ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের সঙ্গে শক্তিশালী সম্পর্ক স্থাপনে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত।

এক টুইট বার্তায় যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় জানিয়েছে, আজ ইউকে-ইন্ডিয়া চুক্তি নিশ্চিত হলো। এই চুক্তির আওতায় ১৮-৩০ বছর বয়সী সনদধারী তিন হাজার ভারতীয় প্রতিবছর যুক্তরাজ্যে এসে দুই বছর তরুণ পেশাজীবী হিসেবে কাজ করতে পারবেন।

ব্রিটিশ সরকার জানায়, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের যে কোনো দেশের তুলনায় ভারতের সঙ্গে তাদের বেশি যোগাযোগ রয়েছে। যুক্তরাজ্যের মোট আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের প্রায় এক-চতুর্থাংশই ভারতের।