পুরান ঢাকার অলিগলিতে ফুটবল বিশ্বকাপের আমেজ


❏ শনিবার, নভেম্বর ১৯, ২০২২ Uncategorized

এস. এম. শাহাদাত হোসেন অনু: বিশ্বের সেরা উন্মাদনা ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবল শুরু হতে আর মাত্র এক দিন বাকি। এরই মধ্যে রাজধানী পুরান ঢাকার আনাচে-কানাচে দেখা যাচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবলের আমেজ। বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া বিভিন্ন দেশের পতাকা বিক্রির ধুম পড়েছে। পছন্দের দেশের পতাকা উড়তে শুরু করেছে পুরান ঢাকার অনেক বাসা-বাড়ির ছাদে।

ভিক্টোরিয়া পার্ক, শাঁখারী বাজার মোড়, রায় সাহেব বাজার, লক্ষ্ণী বাজার, বংশাল, তাঁতিবাজার মোড়, নবাবপুর, ওয়ারী এলাকায় পতাকা নিয়ে অনেক ফেরিওয়ালা দেখা যায়। আবার দোকানেও চলছে পতাকা বিক্রির ধুম। পরিবহন গুলোর সামনে ফুটবল বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী প্রিয় দেশের পতাকা আটকানো দেখা যায়।

শুক্রবার পুরান ঢাকার অলিগলিতে হেঁটে হেঁটে বিভিন্ন দেশের পতাকা বিক্রি করছিলেন এহসান। তিনি বলেন, ঢাকা শহরে এক-দেড় মাস আগে থেকেই বিশ্বকাপের আমেজ শুরু হয়ে গেছে। বিশ্বকাপ ফুটবলে বিভিন্ন দেশের সমর্থকরা তাদের প্রিয় দেশের পতাকা এখন থেকেই কিনে রাখছেন। আমি ছোট, বড়, মাঝারি সব ধরনের পতাকা বিক্রি করি। এর মধ্যে ছোট হাতে রাখার যে পতাকা, সেটা বেশির ভাগ বাচ্চারা কিনে থাকে। আর বড় সাইজের পতাকাগুলো বাসার ছাদে টাঙানোর জন্য কিনে নিয়ে যায় যুবকরা। অনেকে এর সঙ্গে বাংলাদেশের পতাকাও নিচ্ছে।

ঢাকার অলিগলি হেঁটে বাংলাদেশ, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, স্প্যান, সৌদি আরব, ইংল্যান্ড, পর্তুগাল, জার্মানিসহ বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা বিভিন্ন দেশের পতাকার বাহার দেখা যায় বংশালের সুরতহাল ষ্টোরে বিক্রি করছেন কাজী রফিক।

রফিক বলেন, ফুটবল বিশ্বকাপকে সামনে রেখেই মূলত পতাকা বিক্রি বেড়ে গেছে। এখন তুলনামূলক বেশি বেচাকেনা হচ্ছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশ, আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের পতাকা বিক্রি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, চকবাজার থেকে আমি পতাকাগুলো পাইকারি কিনে এনেছি।

এদিকে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, টিকাটুলির স্বামীভাগে বিশ্বকাপকে সামনে রেখে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দেশের পতাকার আল্পনার ছোঁয়ায় পেয়েছে প্রতিটি দেয়ালে। শুধু পতাকাই নয় ফিটবল বিশ্বের কিংবদন্তী ফুটবলারদের ছবি স্থান পেয়েছে এ দেয়াল। মেসি, ম্যারাডোনা, পেলে, রোনালদো, নেইমারসহ যত সব তারকা। পছন্দের তারকার সাথে সেল্পি তুলতে ভিড় দেখা যায়। নিজস্ব অর্থায়নে এসব আর্টওয়ার্ক করেছে একঝাঁক যুবক। তরুণ প্রজন্মের মধ্যে এক আনন্দের সমারোহ কাজ করছে। এলাকাবাসীও ফুটবল বিশ্বকাপের আনন্দে মেতেছে।

বিকেলে লক্ষীবাজার এলাকায় আর্জেন্টিনা সমর্থকদের পতাকা নিয়ে ব্যাপক শোডাউন দেখা যায়। সকল বয়সী মানুষের অংশগ্রহণে গনজোয়ার সৃষ্টি হয়। শোডাউনে দুইটি পিকআপ, ১০টির বেশি বাইক, ২টি কারসহ দুইশতাধিক সমর্থক অংশগ্রহণ করেন। ছোট বাচ্চাদের জার্সি কিনতে দেখা যায়। তবে ছোটদের পছন্দের শীর্ষে আকাশী নীল রংয়ের আর্জেন্টিনার জার্সি।

বাচ্চাকে নিয়ে বাসা থেকে ঘুরতে বের হন সোহাগ, রাস্তায় বের হতেই চোখে পড়ে জার্সি বিক্রির ধুম। তাই বাচ্চারও কেনার আগ্রহ বেড়ে যায়। বাচ্চার পছন্দকেই প্রাধান্য দিয়েছেন সোহাগ। বলেন আমি যে দেশই সার্পোট করি না কেন, বাচ্চা যে রংয়ের জার্সি পছন্দ করছে সেটাই কিনে দিয়েছি।

উল্লেখ্য, আগামীকাল ২০ নভেম্বর মরুভূমির বুকে কাতারে ২২ তম ফিফা বিশ্বকাপের সবচেয়ে বড় আসর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।