• আজ বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৭ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

আ. লীগ কার্যালয়ে ককটেল বিস্ফোরণ, বিএনপির ৫০ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা


❏ সোমবার, নভেম্বর ২১, ২০২২ রাজশাহী

বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ার কাহালু উপজেলার পাইকড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ভাঙচুর ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় স্থানীয় বিএনপির ৫০ জন নেতা-কর্মীর নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এতে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে আরও ২০০-৩০০ জনকে। মামলার পর দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রোববার (২০ নভেম্বর) বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি দায়ের করেছেন উপজেলার পাইকড় ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ছারোয়ার কাজী।

এর আগে গতকাল শনিবার (১৯ নভেম্বর) রাত ৯টার দিকে পাইকড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ভাঙচুর ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় শিপন ও রতন নামে দুজন আহত হয়েছেন। শিপন কাহালু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং রতন শহিদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এদের মধ্যে রতন গ্রেপ্তার হওয়া আসামি। আরকে আসামির নাম মন্টু। তাঁকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ভাঙচুর এবং ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি নেতারা।

পাইকড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা মিঠু চৌধুরী বলেন, ‘গত শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) রাতে পাইকড় ইউনিয়নের আড়োলা বাজারে কর্মিসভা করতে চেয়েছিল স্থানীয় বিএনপি নেতা। এ সময় তাদের বাধা দেয় স্থানীয়রা। এ ঘটনা কেন্দ্র করে পরদিন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় বিএনপি-জামায়াতের তিন শতাধিক নেতা-কর্মী। তারা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ভাঙচুর করে।’

কাহালু থানার বিএনপি সভাপতি ফরিদুর রহমান বলেন, ‘আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে বিএনপি নেতা-কর্মীরা যেন যেতে না পারে সে জন্য আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা নিজেরাই এ ঘটনা ঘটিয়ে আমাদের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে।’

কাহালু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমবার হোসেন বলেন, ‘এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের ধরতে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।’