🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ১ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

‘ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস’ মঙ্গলবার

University news
❏ সোমবার, নভেম্বর ২১, ২০২২ লাইফস্টাইল

যায়িদ বিন ফিরোজ, ইবি প্রতিনিধি: শৈশব পেরিয়ে যৌবনের মাঝামাঝি সময় অতিবাহিতকারী উত্তর-দক্ষিণাঞ্চলের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ, জ্ঞানের বাতিঘর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) চুয়াল্লিশতম দিবসে পদার্পণ করেছে আগামী ২২শে নভেম্বর। ‘গ্রীণ ক্যাম্পাস’ খ্যাত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ছেয়ে আছে হাজার প্রজাতির তরু-পল্লবের আচ্ছাদিত ছায়ায় সুনিবিড় ক্যাম্পাস যেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরুপ বৈচিত্র‍্য। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দেশ ও বিশ্ব অঙ্গনে প্রতিনিয়তই রেখে যাচ্ছে সাফল্যের স্বাক্ষর। পাশাপাশি সংস্কার চর্চায়ও নেই পিছিয়ে। সারাদিনই এই ক্যাম্পাস মেতে থাকে শিক্ষার্থীদের গান আড্ডার সুরে।

বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে প্রশাসন ভবন চত্বরে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করবেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম। একই সময়ে প্রভোস্টগণ নিজ নিজ হলে জাতীয় পতাকা ও হল পতাকা উত্তোলন করবেন।

পতাকা উত্তোলন শেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ক্যাম্পাসের ‘মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব’ ম্যুরালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করবেন উপাচার্য। পরে শান্তির প্রতীক পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের কর্মসূচি উদ্বোধন করবেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত থাকবেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া। কর্মসূচি উদ্বোধন শেষে সেখান থেকে উপাচার্যের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীবৃন্দের অংশগ্রহণে বর্ণাঢ্য আনন্দ র‍্যালি বের করা হবে।

র‍্যালি শেষে বাংলা মঞ্চে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া এবং স্বাগত বক্তা হিসেবে রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এইচএম আলী হাসান উপস্থিত থাকবেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করবেন বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও পরিবহন প্রশাসক অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হবে।

এ ছাড়া দিবসটি উপলক্ষে বাদ জোহর কেন্দ্রীয় মসজিদসহ সব হল মসজিদে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। পরে বিকেল ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটি, সাংবাদিক সমিতি ও প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ‘ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ৪৪ বছরের অগ্রগতি’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হবে।

দিবসটি উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় ৪৩ বছর পেরিয়ে ৪৪ বছরে পদার্পণ করবে। অর্থাৎ বিশ্ববিদ্যালয়ের শৈশবকাল শেষ করে এখন যৌবনের মাঝামাঝি সময় পার করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৪ বছরের খতিয়ানগুলো ইতিহাসের অংশ হয়ে আছে। আমি মনে করি, বিশ্ববিদ্যালয় একটি প্রবাহমান প্রতিষ্ঠান। ৪৪ বছরের মতো ১০০ বছরে এসেও এটি সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে নিবে। কিন্তু এই চলমান মাত্রা বা প্রবাহ মাত্রাকে বজায় রাখা জরুরি।”

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে প্রধান ফটক, প্রশাসন ভবন, ভিসি বাংলো, মুক্তবাংলা ও সততা ফোয়ারা চত্বরসহ আবাসিক হলগুলোতে আলোকসজ্জার ব্যবস্থা করেছে প্রশাসন।