• আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ১ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল কাজ আলোকিত ও জ্ঞানী মানুষ তৈরি : ইবি উপাচার্য

University news
❏ মঙ্গলবার, নভেম্বর ২২, ২০২২ শিক্ষাঙ্গন

যায়িদ বিন ফিরোজ, ইবি প্রতিনিধি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেছেন, পৃথিবীর সকল বড় বড় বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর মূল লক্ষ্য হচ্ছে ‘আমি কিভাবে আলোকিত মানুষ ও জ্ঞানী মানুষ তৈরি করবো এটাই বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল কাজ’। শুধু সার্টিফিকেট দেওয়া ও ক্লাসে লেখা পড়া করা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ নয়। বরং বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল লক্ষ্য জ্ঞান ও মূল্যবোধ সৃষ্টি করা।

মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) চুয়াল্লিশতম দিবসে পদার্পণ অনুষ্ঠান উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা মঞ্চে আয়োজিত আলোচনা সভায় উপাচার্য এসব কথা বলেন।

অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, বাংলাদেশে বর্তমানে ৫৩ টি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এবং ১০৮ টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে কেউ না কেউ প্রথম দ্বিতীয় হবে আমাদের যে এতে চ্যাম্পিয়ান হতে হবে এটাতে আমি বিশ্বাস করি না আমি এটাতে বিশ্বাস করি আমি যেটা করছি সেটা সততার সাথে, আন্তরিকতার সাথে নিষ্ঠার সাথে করছি কিনা, আমার দায়িত্ব ও রুটি রুজি হালাল করতে আমি আমার কাজটি করছি কিনা।

তিনি আরও বলেন, প্রতি বছরই আমরা আমাদের জন্মদিন পালন করি আসুন আজকের এই ৪৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে অঙ্গীকার করি সক্রিয় ভাবে ও সুনামের সাথে আমি আমার অর্পিত দায়িত্ব পালন করবো। আমরা চ্যাম্পিয়ান হলাম কি হলাম না সেটি আমার তাকানোর দরকার নেই।

এদিকে সকাল পৌনে ১০টার দিকে প্রশাসন ভবন চত্বরে উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম জাতীয় পতাকা ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ক্যাম্পাসের ‘মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব’ ম্যুরালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের মাধ্যমে দিবসটির আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া এবং ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসান। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সেখানে শান্তির প্রতীক পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।

এর পরপরই উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালামের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতিতে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। শোভাযাত্রাটি মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব ম্যুরাল থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের বাংলা মঞ্চে এসে শেষ হয়। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস কেন্দ্র করে সেখানে আলোচনা সভা, কেক কাটা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

উক্ত অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শিরিনা খাতুনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া।
এদিকে স্বাগত বক্তা হিসেবে রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এইচ. এম আলী হাসান উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান বলেন, সমালোচনা এড়িয়ে আামাদের সকলের নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করা উচিত। এসময় তিনি মাদক বিরোধী প্রচারনা চালানোর জন্য ছাত্রলীগের প্রশংসা করেন। সারা দেশের মত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়কে ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় করার ইচ্ছা পোষন করেন। সবশেষে তিনি নীতি ও নৈতিকতা বজায় রেখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করার আহবান জানান।

এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে বাদ জোহর কেন্দ্রীয় মসজিদসহ সব হল মসজিদে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।