• আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ১ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

ইবির খালেদা জিয়া হলে বরণ-বিদায় সংবর্ধনা

University news
❏ বুধবার, নভেম্বর ২৩, ২০২২ শিক্ষাঙ্গন

যায়িদ বিন ফিরোজ, ইবি প্রতিনিধি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ছাত্রীদের আবাসিক হল বেগম খালেদা জিয়ার ২০১৪-১৫ ও ২০১৫-১৬ বর্ষের শিক্ষার্থীদের বিদায়ী সংবর্ধনা ও নবাগত শিক্ষার্থীদের বরণ ২০২২ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে হলে বর্ণিল আলোকসজ্জা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসময় হলেন প্রায় কয়েকশো শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগমখালেদা জিয়া হলের মুক্ত প্রাঙ্গনের স্থায়ী মঞ্চে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসময় বিদায়ী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা স্মারক ও নবীন শিক্ষার্থীদের ফুলেল শুভেচছা জানানো হয়।

বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ও খালেদা জিয়া হল প্রভোস্ট ড. ইয়াসমিন আরা সাথীর সভাপতিত্বে বিশ্বের অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো: আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া, পরিবহন প্রশাসক অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন, প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভাপতি ও শেখ রাসেল হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. দেবাশীষ শর্মা প্রমূখ।

হলের নবীন এক শিক্ষার্থী অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, হল লাইফ এমন একটা জায়গা যেখানে ছোট-বড় সকলের মাঝে এক সুন্দর মেলবন্ধন তৈরি হয়। প্রকৃতির নিয়মেই বিদায় ঘটে। আজ নবীন বরণের আনন্দ ভাটা পড়েছে প্রবীন বিদায়ের কাছে। আপনারা আমাদের পথপ্রদর্শক।

এদিকে হলের বিদায়ী শিক্ষার্থী ফাতেমা খাতুন বেদনা ব্যক্ত কন্ঠে বলেন, আজকের বিদায়ের মাধ্যমে হলের সাথে বেধে থাকা শেষ সূত্রটুকুও ছিন্ন হয়ে গেল। আজকের পর থেকে হলে আসলে প্রাক্তন ট্যাগটা লেগে থাকবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ড. ইয়াসমিন আরা সাথী বলেন, আমাদের মেয়েদের জীবনে সুখ স্মৃতি খুব কম। সংসার জীবনের জটিলতা যাবতীয় জীবনের বৈপরীত্যের কারণে সুখ স্মৃতি খুব বেশি থাকে না। তাই আমার কাছে মনে হয় হল জীবন মানুষের জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়। আমি চেষ্টা করেছি জয়েন করার পর থেকে মেয়েদের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করেছি, কাউন্সেলিং করেছি বাইরে থেলে সাইক্রিয়াইস্ট নিয়ে কাউন্সেলিং করেছি। ত্রিশ টাকায় উন্নতমানের খাবার দেওয়ার চেষ্টা করেছি। অর্থাৎ আমার সাধ আছে সীমাবদ্ধতার কারণে করা যায় না।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান বলেন, বিদায় কথাটা আমার কাছে খুব বেদনাদায়ক মনে হয়। তাই বিদায় কথাটা আমি বলতে চাই না। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যারা পড়াশোনা কমপ্লিট করেছে তারা এই ক্যাম্পাসেরই সন্তান হিসেবে অন্য কোন জায়গায় প্রফেশনাল এক্টিভিটিতে যুক্ত হবে। কিন্তু তারা ইবির সাথে জড়িত থাকবে।

তিনি নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, তোমরা ভালো জিনিসকে অনুসরণ ও খারাপকে বর্জন করবে। মূলত মানসিকভাবে নিজেকে পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।