এইমাত্র
  • এবার দেশের সব উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বদলির নির্দেশ
  • ক্লাইমেট মোবিলিটি চ্যাম্পিয়ন লিডার অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত প্রধানমন্ত্রী
  • কারাগারে বন্দি অবস্থায় বিএনপি নেতার মৃত্যু
  • আচরণবিধি লঙ্ঘন: আদালতে ব্যাখ্যা দিলেন সাকিব
  • ভোটের আগ মুহূর্তে দেশের সব থানার ওসি বদলির নির্দেশ ইসির
  • শনিবার আব্দুল্লাহপুর থেকে বোর্ডবাজার পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে
  • ঝালকাঠিতে শাহজাহান ওমরকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা
  • ‘বিএনপির ১৫ কেন্দ্রীয় নেতা ও ৩০ সাবেক এমপি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে’
  • ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ৫ কিলোমিটার যানজট
  • বগুড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় কাভার্ডভ্যান চালকের মৃত্যু
  • আজ শুক্রবার, ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪৩০ | ১ ডিসেম্বর, ২০২৩

    ভারতকে ১৬ রানে হারিয়ে সিরিজ়ে সমতা ফেরাল শ্রীলঙ্কা

    সময়েরকণ্ঠস্বর প্রকাশ: ৫ জানুয়ারি ২০২৩, ১১:১৭ পিএম
    সময়েরকণ্ঠস্বর প্রকাশ: ৫ জানুয়ারি ২০২৩, ১১:১৭ পিএম

    ভারতকে ১৬ রানে হারিয়ে সিরিজ়ে সমতা ফেরাল শ্রীলঙ্কা

    সময়েরকণ্ঠস্বর প্রকাশ: ৫ জানুয়ারি ২০২৩, ১১:১৭ পিএম

    স্পোর্টস ডেস্ক: শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে নিজেদের পরীক্ষার মুখে ফেলার কথা বলেছিলেন হার্দিক পাণ্ড্য। দ্বিপাক্ষিক সিরিজ়ে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলতে চাইছেন ভারতের নতুন অধিনায়ক। পুণেতে টস জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্তের মধ্যেও হার্দিকের তেমন মনোভাবই দেখা গেল। যে মাঠে প্রথমে ব্যাট করে জয়ের পরিসংখ্যান বেশি, সেই মাঠে হঠাৎ আগে বল করার সিদ্ধান্ত অবাক করে দেয়। শ্রীলঙ্কা প্রথম ব্যাট করার সুযোগ পেয়ে ২০৬ রান করে। জবাবে ভারত

    টস জিতলে আগে ব্যাট করতেন বলেই জানালেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দাসুন শনকা। পুণের ছোট মাঠে যে কোনও অধিনায়ক সেটাই করেন। সুযোগ পেয়ে কাজেও লাগালেন শ্রীলঙ্কার ওপেনাররা। বড় রান তোলার ভিতটা করে দিলেন তাঁরা। হার্দিক প্রথম ওভারে মাত্র রান দিয়েছিলেন। কিন্তু তা ভুলিয়ে দিলেন আরশদীপ সিংহ। একের পর এক নো বল করে গেলেন। দ্বিতীয় ওভারে পর পর তিনটি নো বল করেন তিনি। দিলেন ১৯ রান। গোটা ম্যাচে ওভার বল করেছেন আরশদীপ। পাঁচটি নো বল করেছেন তার মধ্যে। দিয়েছেন ৩৭ রান। কোনও উইকেটও পাননি। দীনেশ কার্তিক এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ?খুব বেশি ম্যাচ না খেলার ফলে এটা হল। শরীর খারাপ ছিল আরশদীপের। সেটা সারতেই মাঠে নেমে পড়েছে। অনুশীলন করতে পারেনি ভাল করে।?

    দিন ভারতের সব থেকে সফল বোলার উমরান মালিক। তাঁর গতিই শক্তি আবার সেই গতিই দুর্বলতা। পুণের ছোট মাঠে উমরানের গতি কাজে লাগিয়েই বাউন্ডারি মারছিলেন শ্রীলঙ্কার বোলাররা। তিনটি চার এবং চারটি ছক্কা দিয়েছেন উমরান। তিনটি উইকেটও তুলেছেন তিনি। ভারতীয় বোলারদের মধ্যে সব থেকে বেশি মার খেয়েছেন শিবম মাভি। যিনি অভিষেক ম্যাচে উইকেট নিয়ে নজর কেড়েছিলেন, সেই ভারতীয় পেসার দিন ওভারে ৫৩ রান দেন। কোনও উইকেটও নিতে পারেননি তিনি। অথচ যিনি ভাল বল করছিলেন সেই হার্দিক নিজে করলেন মাত্র ওভার। ১৩ রান দেন তিনি। হার্দিক কেন নিজের পুরো ওভার শেষ করেননি তা তিনিই জানেন।

    শ্রীলঙ্কার হয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইনিংসটা খেলে গেলেন তাদের অধিনায়ক। নিজের দেশের হয়ে দ্রুততম অর্ধশতরান করেন শনকা। ২২ বলে ৫৬ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। শেষ বেলায় তাঁর ইনিংসই শ্রীলঙ্কাকে ২০০ রানের গণ্ডি পার করিয়ে দেয়। রান তোলার যে কাজটা শুরু করেছিলেন পাতুম নিশঙ্কা (৩৩) এবং কুশল মেন্ডিস (৫২) সেটাই শেষ করলেন শনকা। চার নম্বরে নেমে চারিত আশালঙ্কা করেন ৩৭ রান। চারটি ছক্কা মারেন তিনি।

    ম্যাচ জিততে হলে ভারতের প্রয়োজন ছিল শুরু থেকে দ্রুত রান তোলা। কিন্তু দ্বিতীয় ওভারের মধ্যেই ভারতের দুই ওপেনার সাজঘরে ফেরেন। অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা রাহুল ত্রিপাঠী ফিল্ডিং করার সময় দুরন্ত ক্যাচ নিয়েছিলেন, কিন্তু ব্যাট হাতে তিনি ব্যর্থ। মাত্র রান করে সাজঘরে ফিরে যান ত্রিপাঠী। হার্দিক ১২ রান করেন। রান পাননি দীপক হুডাও। তিনি রান করে সাজঘরে ফেরেন। এর পরেই সূর্যোদয় ভারতীয় ইনিংসে। সূর্যকুমার যাদব এবং অক্ষর পটেল মিলে ৯১ রানের জুটি গড়েন। সেই জুটিই ভারতকে জয়ের স্বপ্ন দেখাতে শুরু করেছিল, কিন্তু তা স্বপ্ন হয়েই থেকে যায়।

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…