এই মাত্র
  • গভীর রাতে ছাত্রলীগ নেতাকে পিটুনি
  • সেই রনি এখন চা বিক্রেতা!
  • তুরস্ক-সিরিয়া সীমান্তে ভূমিকম্প: নিহতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৩শ’
  • পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খোলা সেই বায়েজিদের জামিন
  • তুরস্কে ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়াতে পারে
  • ভয়াবহ ভূমিকম্পে তুরস্ক-সিরিয়ায় ৫ শতাধিক মৃত্যু
  • আমার মন্তব্য ছিল ফখরুলকে নিয়ে, হিরো আলম নয়: ওবায়দুল কাদের
  • তুরস্ক-সিরিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহতের সংখ্যা ছাড়ালো ৩০০
  • তিন দিনের সফরে ঢাকায় বেলজিয়ামের রানি মাথিল্ডে
  • শক্তিশালী ভূমিকম্পে তুরস্ক ও সিরিয়ায় নিহত শতাধিক
  • আজ সোমবার, ২৪ মাঘ, ১৪২৯ | ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
    আপনার স্বাস্থ্য

    গবেষণা বলছে ওজন কমাতে ভুমিকা রাখে মাছ ও মাংস!

    user Palash_Malick
    প্রকাশ: ১৫ জানুয়ারি, ২০২৩ ০৯:২২ এএম

    স্বাস্থ্য ডেস্ক: ওজন তাড়াতাড়ি কমবে কি না, তা নির্ভর করে ওজন কমানোর ডায়েটে কী খাবার রাখছেন তার উপর। শরীরচর্চা তো রয়েছেই, সেই সঙ্গে খাওয়াদাওয়ায় নিয়ম মেনে না চললে ওজন কমানো সহজ তো নয়। বরং আরও কঠিন হয়ে পড়ে। পুষ্টিবিদদের মতে, ওজন কমাতে হলে প্রোটিন বেশি করে খেতে হবে। দ্রুত ওজন কমাতে শরীরের প্রোটিনের জোগান পর্যাপ্ত রাখা প্রয়োজন। কারণ, প্রোটিন দীর্ঘ ক্ষণ পেট ভর্তি রাখে। ফলে বার বার খাবার খাওয়ার প্রবণতা দূর হয়। প্রোটিনের আধিক্য আমিষ খাবারেই বেশি। তবে নিরামিষ যাঁরা খান, উদ্ভিদজাত খাবার থেকেও প্রোটিন পাওয়া যায়।

    সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষা জানাচ্ছে, মাছ ওজন কমাতে খুব সাহায্য করে। তারকারাও তাঁদের ডায়েটে মাছ রাখেন। যে কোনও মাছ খেলেই পেট ভরতি থাকে অনেক ক্ষণ। পেশিশক্তি বাড়াতে মাছ খুবই উপকারী। খুব ভাল হয় যদি ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড-সমৃদ্ধ মাছ খেতে পারেন। ফ্যাটি অ্যাসিডে ভরপুর মাছ হার্টের যত্ন নেয়।

    একটি গবেষণা জানাচ্ছে, হৃদ্‌রোগীদের সুস্থ থাকতে মাছ খাওয়া খুব জরুরি। এই তালিকায় এক নম্বরে রয়েছে সামুদ্রিক মাছ। এ ছাড়া, ছোট মাছও খেতে পারেন। এমনকি, হজমের সমস্যা নিয়েও নাজেহাল হলে বেশি করে মাছ খেতে পারেন। উপকার পাবেন। যাঁরা মাছ খান না, গবেষণা বলেছে তাঁদের শারীরিক নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। মহিলাদের ক্ষেত্রে প্রভাব পড়তে পারে ঋতুস্রাবেও। অনিয়মিত ঋতুস্রাব মাছ না খাওয়ার একটা বড় কারণ হতে পারে। রোজ মাছ খেতে পারলে সবচেয়ে ভাল, তা না হলে সপ্তাহে অন্তত তিন দিন মাছ খেতেই হবে। ওজন কমাতে চাইছেন যাঁরা, তাঁদের মাছ খেতেই হবে।

    ওজন কমানোর সময়ে অনেকেই আবার ডায়েটে চিকেনও রাখেন। পুষ্টিবিদরা জানাচ্ছেন, ওজন কমাতে চিকেনও দারুণ উপকারী। মুরগির মাংসে থাকা নানা রকম স্বাস্থ্যগুণ দ্রুত ওজন ঝরিয়ে ফেলতে সাহায্য করে। রোজ মুরগির মাংস খেলে হাড় এবং পেশি শক্তিশালী হয়। তবে চিকেন কী ভাবে খাচ্ছেন সেটা জরুরি। ডোবা তেলে ভেজে কিংবা পকোড়া বানিয়ে খেয়ে কোনও লাভ নেই। শরীরের যত্ন নিতে চাইলে চিকেন দিয়ে বানাতে হবে স্টু, স্যুপ জাতীয় খাবার। অনেকে আবার গ্রিলড চিকেনও খান। সেদ্ধ চিকেন খেতে পারলে বাড়তি উপকার পাওয়া যায়। প্রশ্ন উঠতে পারেন চিকেন না কি মাছ, রোগা হওয়ার জন্য কোনটি বেশি উপকারী?

    পুষ্টিবিদরা জানাচ্ছেন, মাছ এবং মুরগির মাংস রোগা হতে দু’টোই জরুরি। কারও সঙ্গে কোনও প্রতিযোগিতা নেই। তবে মাছ কিংবা মাংস যাই খান, কী ভাবে খাচ্ছেন খেয়াল রাখুন। তেল-মশলা দিয়ে রান্না করে খেলে কোনও সুফল পাওয়া যাবে না।

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    চলতি সপ্তাহে সর্বাধিক পঠিত

    সর্বশেষ প্রকাশিত