এইমাত্র
  • পণ্য মজুতকারীদের গণধোলাই দেয়া উচিত: প্রধানমন্ত্রী
  • মাদারীপুরে এক্সপ্রেসওয়েতে বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ৪
  • চিনির দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলো সরকার
  • বসন্ত বিকেলে স্বস্তির বৃষ্টিতে ভিজল ঢাকা
  • বিদেশি ঋণের চাপ আছে, তবে বেশি না: অর্থমন্ত্রী
  • রিয়া মণিকে নিয়ে প্রশ্ন করায় ক্ষেপলেন হিরো আলম
  • রোজার আগেই চিনির দাম বাড়লো কেজিতে ২০ টাকা
  • ‘বিএনপির আটক কর্মীদের মুক্তির সঙ্গে নির্বাচনের সম্পর্ক নেই’
  • বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই মাতৃভাষা ও স্বাধীনতা পেয়েছি: শেখ হাসিনা
  • সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলতাফ চৌধুরীর জামিন, মুক্তিতে বাধা নেই
  • আজ শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন, ১৪৩০ | ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
    জাতীয়

    মায়ের জিম্মায় থাকবে সেই দুই শিশু, জাপান যেতে বাধা নেই

    সময়ের কণ্ঠস্বর প্রকাশ: ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪:৫০ পিএম
    সময়ের কণ্ঠস্বর প্রকাশ: ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪:৫০ পিএম

    মায়ের জিম্মায় থাকবে সেই দুই শিশু, জাপান যেতে বাধা নেই

    সময়ের কণ্ঠস্বর প্রকাশ: ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪:৫০ পিএম

    সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা: জাপানি মায়ের জিম্মায় থাকবে দুই শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনা। একই সঙ্গে মেয়েদের নিয়ে জাপানেও যেতে পারবেন তাদের মা।

    রোববার (২৯ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত সহকারী জজ ও পারিবারিক আদালতের বিচারক দুরদানা রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।

    রায়ে বলা হয়েছে, দুই শিশু তাদের মায়ের কাছে থাকবে এবং মা চাইলে তাদের নিয়ে জাপানে যেতে পারবেন। এই দুই শিশুর বাবা ইমরান শরীফ যে মামলা করেছিলেন সেটাও খারিজ করে দেন আদালত।

    বিষয়টি নিশ্চিত করেন মা নাকানো এরিকোর আইনজীবী শিশির মনির।

    এর আগে গত ২২ জানুয়ারি এ বিষয়ে চূড়ান্ত শুনানি শেষে ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত সহকারী জজ ও পারিবারিক আদালতের বিচারক দুরদানা রহমান রায়ের জন্য এই দিন ধার্য করেন।

    গত ১৫ জানুয়ারি একই আদালত দুই শিশুর বক্তব্য শুনে তা রেকর্ড করেন। পরে রোববার মামলার যুক্তিতর্ক শুনানির দিন ধার্য করেন।

    জাপানি মা নাকানো এরিকো ও বাংলাদেশি বাবা ইমরান শরীফের বিয়ে হয় ২০০৮ সালে। দাম্পত্য কলহের জেরে ২০২০ সালের শুরুতে বিচ্ছেদের আবেদন করেন এরিকো। এরপর ইমরান স্কুলপড়ুয়া বড় দুই মেয়েকে নিয়ে বাংলাদেশে চলে আসেন। ছোট মেয়ে জাপানে এরিকোর সঙ্গে থেকে যান।

    বাংলাদেশে আসার পর দুই মেয়ে কার জিম্মায় থাকবে তা নির্ধারণ করতে আদালতে গড়ায় বিষয়টি। এমনটি আপিল বিভাগে যায় এ ঘটনা। পরে আপিল মামলাটি নিষ্পত্তির জন্য পারিবারিক আদালতে পাঠানো হয়।

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…