এইমাত্র
  • পণ্য মজুতকারীদের গণধোলাই দেয়া উচিত: প্রধানমন্ত্রী
  • মাদারীপুরে এক্সপ্রেসওয়েতে বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ৪
  • চিনির দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলো সরকার
  • বসন্ত বিকেলে স্বস্তির বৃষ্টিতে ভিজল ঢাকা
  • বিদেশি ঋণের চাপ আছে, তবে বেশি না: অর্থমন্ত্রী
  • রিয়া মণিকে নিয়ে প্রশ্ন করায় ক্ষেপলেন হিরো আলম
  • রোজার আগেই চিনির দাম বাড়লো কেজিতে ২০ টাকা
  • ‘বিএনপির আটক কর্মীদের মুক্তির সঙ্গে নির্বাচনের সম্পর্ক নেই’
  • বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই মাতৃভাষা ও স্বাধীনতা পেয়েছি: শেখ হাসিনা
  • সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলতাফ চৌধুরীর জামিন, মুক্তিতে বাধা নেই
  • আজ শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন, ১৪৩০ | ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
    খেলা

    পুলিশ হত্যা মামলার আসামির দাওয়াতে দুবাইয়ে সাকিব!

    স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশ: ১৫ মার্চ ২০২৩, ১১:৫৫ পিএম
    স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশ: ১৫ মার্চ ২০২৩, ১১:৫৫ পিএম

    পুলিশ হত্যা মামলার আসামির দাওয়াতে দুবাইয়ে সাকিব!

    স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশ: ১৫ মার্চ ২০২৩, ১১:৫৫ পিএম
    রবিউল ইসলাম ও সাকিব আল হাসান। ছবি: সংগৃহীত

    আরাভ জুয়েলারি নামে একটি স্বর্ণের দোকান উদ্বোধন করতে দুবাই গেছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। এছাড়া ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শোবিজের অনেক তারকাই দুবাই গেছেন। তবে প্রশ্ন উঠেছে কে এই স্বর্ণের দোকানের মালিক?

    জানা গেছে, সেই জুয়েলারির মালিক রবিউল ইসলাম ওরফে আরাভ। তিনি বাংলাদেশের পুলিশ হত্যা মামলার আসামি।

    বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকা মহানগর গোয়ান্দা (ডিবি) পুলিশের প্রধান হারুন অর রশিদ গণমাধ্যমকে জানান, হত্যা মামলার সাজা থেকে বাঁচতে আবু ইউসুফ লিমন নামে এক তরুণকে বিকেএসপিতে খেলার সুযোগের প্রলোভন দেখান আরাভ। ওই প্রলোভনে লিমন আদালতে আরাভের বদলে আত্মসমর্পণ করেন। পরে আদালত লিমনকে কারাগারে পাঠান। এই ফাঁকে আরাভ ঊর্ধ্বতন এক সরকারি কর্মকর্তার সহায়তায় নকল পাসপোর্ট বানিয়ে দেশত্যাগ করে দুবাইয়ে চলে যান। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে লিমনকে আদালত খালাস দেন।

    খুনের মামলার ফেরারি আসামি রবিউল ইসলাম ওরফে আপন ওরফে আরাভের দুবাইয়ে জুয়েলারি ব্যবসার বিষয়টি নজরে এসেছে গোয়েন্দা পুলিশের। ইন্টারপোলের মাধ্যমে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করে তাকে গ্রেফতারে সহযোগিতা চাওয়া হবে বলে জানায় ডিবি। সূত্র: দৈনিক আমাদের সময়।

    আরাভ খান মূলত গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার আশুতিয়া গ্রামের রবিউল ইসলাম ওরফে আপন ওরফে সোহাগ ওরফে হৃদয়। পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মো. মামুন এমরান খান হত্যা মামলার পলাতক আসামি তিনি। ভারতীয় পাসপোর্ট ব্যবহার করে তিনি দুবাইয়ে অবস্থান করছেন।

    ২০১৮ সালে মামুন এমরান খানকে হত্যার পর মরদেহ পুড়িয়ে গাজীপুরে একটি জঙ্গলে ফেলে দেয়া হয়। ওই ঘটনায় হওয়া মামলার আসামি রবিউল ইসলাম ওরফে আরাভ। ওই সময় থেকেই তিনি পলাতক। পরে জানা যায়, যোগসাজশের মাধ্যমে প্রকৃত আসামি রবিউলের পরিবর্তে জেলে গেছেন চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার আবু ইউসুফ লিমন। পরে সত্য প্রকাশ করে দেন তিনি। আদালত বিষয়টি অধিকতর তদন্তের দায়িত্ব দেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশকে।

    রবিউল ভারতে গিয়ে বিয়ে করে সে দেশের নাগরিকত্ব নেন আরাভ খান নামে। তার ভারতীয় পাসপোর্ট নম্বর ইউ ৪৯৮৫৩৮৯। ২০২১ সালের ৩১ অক্টোবর থেকে ২০২৪ সালের ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত তিন বছর মেয়াদি ভিসা পান তিনি। আরাভ খান প্রবাসীদের কাছে নিজেকে বাংলাদেশি বলে পরিচয় দেন।

    ভারতীয় পাসপোর্ট অনুযায়ী আরাভ খানের জন্ম ১৯৯৩ সালের ৩১ জুলাই। ৩০ বছর বয়সি আরাভ খান দুবাইয়ে হাজার কোটি টাকা মূল্যের জুয়েলারি শপ খুলে সেখানকার ব্যবসায়ীদেরও চমকে দিয়েছেন।

    জানা গেছে, সাকিব ছাড়াও চলচ্চিত্র পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস, চিত্রনায়িকা দীঘি, হিরো আলম, গায়ক নোবেল, রুবেল খন্দকার, বেলাল খান, জাহেদ পারভেজ পাভেলের মতো শোবিজের একঝাঁক তারকা উপস্থিত থাকবেন সেই অনুষ্ঠানে।

    খুনের মামলার আসামির দোকান উদ্বোধনে সাকিবের অংশগ্রহণ নিয়ে দুবাইয়ের বাংলাদেশি কমিউনিটিতে বেশ আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

    এফএস

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…