এইমাত্র
  • আফগানিস্তানে আকস্মিক বন্যায় ৩৩ জনের মৃত্যু
  • হাসপাতালের প্রিজন সেলে আসামির হাতে আসামি খুন
  • মুক্তিপণ নিয়ে ফেরার পথে ৮ জলদস্যু গ্রেপ্তার
  • বাংলাদেশে পালিয়ে এলো মিয়ানমার বিজিপির আরও ৯ সদস্য
  • নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে হলো মঙ্গল শোভাযাত্রা
  • কুষ্টিয়ার মিরপুরে আ.লীগ নেতার গুলিতে ২ জন গুলিবিদ্ধ, আটক ২
  • অবকাঠামো বিহীন টেকনাফ সমুদ্র সৈকতে পর্যটকের ঢল
  • উত্তেজনার মধ্যেই ইসরায়েলে রকেট হামলা হিজবুল্লাহর
  • রাজধানীতে অতিরিক্ত মদপানে ও লেভেলের শিক্ষার্থীর মৃত্যু
  • ফিলি’স্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিতে ‘প্রস্তুত’ ইউরোপের যে ৩ দেশ
  • আজ সোমবার, ২ বৈশাখ, ১৪৩১ | ১৫ এপ্রিল, ২০২৪
    আন্তর্জাতিক

    বিয়েতে অনাগ্রহ দক্ষিণ কোরিয়ায়, কম জন্মহারেও রেকর্ড !

    আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রকাশ: ১৭ মার্চ ২০২৩, ১১:২৮ এএম
    আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রকাশ: ১৭ মার্চ ২০২৩, ১১:২৮ এএম

    বিয়েতে অনাগ্রহ দক্ষিণ কোরিয়ায়, কম জন্মহারেও রেকর্ড !

    আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রকাশ: ১৭ মার্চ ২০২৩, ১১:২৮ এএম

    বিয়ে করার প্রতি আগ্রহ ক্রমশ কমছে দক্ষিণ কোরিয়ায়। গত বছর যা রেকর্ড গড়েছে। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কমছে জন্মহারও। এতেও রেকর্ড। চিন্তায় বিশেষজ্ঞেরা। একটা গোটা দেশ বার্ধ্যকের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। অর্থাৎ কিনা, অল্প বয়সিদের সংখ্যা কম, প্রবীণদের সংখ্যা বেশি।

    পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত বছর ১ লক্ষ ৯২ হাজার জন বিয়ে করেছে দক্ষিণ কোরিয়ায়। ১০ বছর আগে ২০১২ সালে বিয়ের সংখ্যা ছিল ৩ লক্ষ ২৭ হাজার। অর্থাৎ প্রায় ৪০ শতাংশ কমে গিয়েছে। বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন, ১৯৭০ সালের পরে এই প্রথম কোনও বছর এত কম সংখ্যায় বিয়ে হয়েছে। তাঁদের ব্যাখ্যায়, বিয়ে করার প্রবণতাই কমে গিয়েছে সমাজে। ছেলেদের বিবাহের গড় বয়স ৩৩.৭ বছর। মেয়েদের বিয়ের গড় বয়স ৩১.৩ বছর। এতেও রেকর্ড। ছেলেদের বিয়ের বয়স ১.৬ বছর বেড়েছে। মেয়েদের ১.৯ বছর বেড়েছে। গত বছর যাঁরা বিয়ে করেছেন, তাঁদের ৮০ শতাংশেরই প্রথম বিয়ে।

    জন্মহারও এ দেশে অস্বাভাবিক কম। গত বছর সবচেয়ে কম সংখ্যক শিশুর জন্ম হয়েছে। মাত্র ২ লক্ষ ৪৯ হাজার। দেশে জন্মহার বৃদ্ধির জন্য ২০০৬ সাল থেকে বাসিন্দাদের উৎসাহ দিচ্ছে সরকার। এই খাতে কমপক্ষে ২১ হাজার ৩০০ কোটি ডলার ব্যয় করেছে তারা। কিন্তু কোনও লাভ হয়নি। দেশের জনসংখ্যা ক্রমশ কমছে। বিশেষজ্ঞদের অনুমান, এ ভাবে চললে জনসংখ্যা ৫ কোটি ২০ লক্ষ থেকে কমে ২০৬৭ সালে ৩ কোটি ৯০ লক্ষ দাঁড়াবে। দেশবাসীর মধ্যবর্তী বয়স দাঁড়াবে ৬২ বছর। মিডিয়ান এজ বা মধ্যবর্তী বয়স হল, যে বয়স কোনও জনগোষ্ঠীকে সমান দু’ভাগে ভাগ করে। অর্থাৎ এ ক্ষেত্রে ৬২ বছর বয়সের উপরে জনসংখ্যা এবং ৬২-র নীচে জনসংখ্যা সমান।

    কিন্তু জনসংখ্যা এ ভাবে কমছে কেন? এ নিয়ে দ্বিমত রয়েছে। অনেকের বক্তব্য, সন্তান মানুষ করার খরচ ক্রমবর্ধমান। আবার অনেকে বলছে, সমাজে প্রতিযোগিতা বেড়েছে। ভাল চাকরি পাওয়া খুব কঠিন। ভাল চাকরি পেলেও তাতে নিরাপত্তা নেই। এ দিকে, জিনিসপত্রের দাম আকাশছোঁয়া। চাকুরিরতা মহিলারা সন্তান ও অফিস সামলাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। তাই অনেকেই সন্তান নিতে চাইছেন না।

    পিএম

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…