এইমাত্র
  • যাত্রাবাড়ীতে গুলিবিদ্ধ হয়ে সাংবাদিক হাসান মেহেদি নিহত
  • ইন্টারনেট বন্ধ করায় গ্রামীণফোনের হেডঅফিস ঘেরাও
  • অস্ত্র জমা দিয়েছি কিন্তু ট্রেনিং জমা দিইনি: মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী
  • দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে বিটিভির আগুন, যেতে পারছে না ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি
  • টাঙ্গাইলে পুলিশের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের দফায় দফায় সংঘর্ষ
  • কিশোরগঞ্জে আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা, আহত অর্ধশতাধিক
  • পঞ্চগড়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল-সড়ক অবরোধ
  • কুমিল্লায় পুলিশের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষ, আহত শতাধিক
  • জামালপুরে পুলিশ-শিক্ষার্থী সংঘর্ষ, আহত ১২, আটক ৪
  • কটিয়াদীতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে হামলায় আহত অর্ধশত
  • আজ মঙ্গলবার, ৮ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ২৩ জুলাই, ২০২৪
    বিনোদন

    হিরো আলমের আয় বেড়েছে ২২ হাজার টাকা

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর প্রকাশ: ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৯:১৪ পিএম
    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর প্রকাশ: ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৯:১৪ পিএম

    হিরো আলমের আয় বেড়েছে ২২ হাজার টাকা

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর প্রকাশ: ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৯:১৪ পিএম

    আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলমের আয় গত ১১ মাসের ব্যবধানে বেড়েছে মাত্র ২২ হাজার টাকা। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে বগুড়া-৪ আসন থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে দাখিল করা হলফনামা থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

    হলফনামার বিষয়ে হিরো আলম বলেন, আমার নির্বাচন করতে টাকা লাগে না মানুষ ভালবেসে আমাকে ভোট দেন। আমার পোস্টার ব্যানারও আমারও ভক্তরা দিয়ে থাকেন। এবারও আমার মনোনয়ন ফি ভক্তরাই দিয়েছেন।

    এবারের হলফনামায় হিরো আলম উল্লেখ করেছেন, তার বছরে আয় ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা। এর মধ্যে কৃষিজমি থেকে ৬ হাজার এবং মিডিয়া ব্যবসা থেকে বাকি টাকা আসে। ব্যাংকে জমা আছে ৩০ হাজার টাকা। স্ত্রীর নামে রয়েছে ১০ ভরি স্বর্ণালংকার। আছে ৫৫ লাখ টাকার পারিবারিক সঞ্চয়পত্র। সব মিলিয়ে গত ১১ মাসে মিডিয়া ব্যবসা থেকে তার আয় বেড়েছে ২২ হাজার টাকা।

    এ বছরের ১ ফেব্রুয়ারি বগুড়া-৪ আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই উপনির্বাচনে গাড়ির কথা উল্লেখ করলেও এবারের হলফনামায় গাড়ির ব্যাপারে কোনো তথ্য নেই। এছাড়া তার কোনো ঋণ নেই এবং একটি মামলা ছিল সেটিও নিষ্পত্তি হয়েছে।

    ২০১৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন চেয়েছিলেন তিনি। তবে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন হিরো আলম।

    গত বছরের ১০ ডিসেম্বর বিএনপির ৬ জন সংসদ সদস্য পদত্যাগের ঘোষণা দেন। পরে বিএনপির দখলে থাকা বগুড়া-৪ ও বগুড়া-৬ (সদর) আসনের উপনির্বাচনে আবারও অংশ নেন হিরো আলম। এ বছরের ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ওই উপনির্বাচনে একতারা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ভোটের রাজনীতিতে ব্যাপক আলোচনায় আসেন এই ইউটিউবার।

    বগুড়া-৬ আসনে জামানত হারালেও বগুড়া-৪ আসনে দেখান অভাবনীয় চমক। মাত্র ৮৩৪ ভোটে মহাজোটের প্রার্থী রেজাউল করিম তানসেনের কাছে পরাজিত হন তিনি।

    এফএস

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…