এইমাত্র
  • হাসপাতালের প্রিজন সেলে আসামির হাতে আসামি খুন
  • মুক্তিপণ নিয়ে ফেরার পথে ৮ জলদস্যু গ্রেপ্তার
  • বাংলাদেশে পালিয়ে এলো মিয়ানমার বিজিপির আরও ৯ সদস্য
  • নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে হলো মঙ্গল শোভাযাত্রা
  • কুষ্টিয়ার মিরপুরে আ.লীগ নেতার গুলিতে ২ জন গুলিবিদ্ধ, আটক ২
  • অবকাঠামো বিহীন টেকনাফ সমুদ্র সৈকতে পর্যটকের ঢল
  • উত্তেজনার মধ্যেই ইসরায়েলে রকেট হামলা হিজবুল্লাহর
  • রাজধানীতে অতিরিক্ত মদপানে ও লেভেলের শিক্ষার্থীর মৃত্যু
  • ফিলি’স্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিতে ‘প্রস্তুত’ ইউরোপের যে ৩ দেশ
  • পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই : ডিএমপি কমিশনার
  • আজ রবিবার, ১ বৈশাখ, ১৪৩১ | ১৪ এপ্রিল, ২০২৪
    বিচিত্র

    ইতিহাসে ৩০ ফেব্রুয়ারি যেভাবে একবারই এসেছিল

    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০২:৪৩ পিএম
    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০২:৪৩ পিএম

    ইতিহাসে ৩০ ফেব্রুয়ারি যেভাবে একবারই এসেছিল

    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০২:৪৩ পিএম

    প্রতি চার বছর পর পর লিপ ইয়ার বা অধিবর্ষ আসে। সাধারণত এক বছর বলতে ৩৬৫ দিনের হিসাব করা হলেও লিপ ইয়ারে ৩৬৬ দিন হিসাব করা হয়। এবারে ২০২৪ সালে বছরের গণনা করা হবে ৩৬৬ দিনে। কারণ চলতি বছর হলো লিপ ইয়ার।

    লিপ ইয়ার হলো প্রতি চার বছর পর পর ৩৬৫-দিনের ক্যালেন্ডারে ফেব্রুয়ারির শেষে বাড়তি একটি দিন যোগ হওয়া। তাই ২৯ ফেব্রুয়ারি অবশ্যই বিশেষ একটি দিন।

    যারা এই তারিখে জন্মগ্রহণ করেছেন তারা প্রতি চার বছরে পর পর তাদের প্রকৃত জন্মদিন পালন করতে পারেন। কিন্তু ইতিহাসে শুধুমাত্র একবার এমন সময় এসেছিল যখন ক্যালেন্ডারে ৩০ ফেব্রুয়ারি যোগ করতে হয়েছিল। সুইডেন একটি ডাবল লিপ ইয়ারের অংশ হিসেবে ১৭১২ সালের ক্যালেন্ডারে ৩০ ফেব্রুয়ারি যুক্ত করেছিল।

    সুইডিশ সাম্রাজ্যের (যে সময় ফিনল্যান্ড অন্তর্ভুক্ত ছিল) জুলিয়ান পঞ্জিকার পরিবর্তে ১৭০০ সাল থেকে গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার ব্যবহার শুরু করে এবং পরবর্তী ৪০ বছরের জন্য লিপ দিনগুলো বাতিলের পরিকল্পনা করা হয়। যদিও ফেব্রুয়ারি ১৭০০ সালে অধিবর্ষ দিনটি বাদ দেয়া হয়েছিল, কিন্তু পরের বছরই গ্রেট নর্দার্ন যুদ্ধ শুরু হয়, সুইডিশদের পক্ষে এই সময় ক্যালেন্ডার পরিবর্তনে মনোনিবেশ করা সম্ভব হয়নি, ফলে পরবর্তী দুইবার অধিবর্ষে অতিরিক্ত দিনগুলো অপসারণ করা সম্ভব হয়নি এবং ১৭০৪ এবং ১৭০৮ সালে পূর্বের মতো অধিবর্ষ পালন করা হয়।

    বিভ্রান্তি এবং আরো ভুল এড়ানোর জন্য, ১৭১২ সাল থেকে পুনরায় জুলিয়ান পঞ্জিকা ব্যবহার শুরু করা হয়, এই বছর ফেব্রুয়ারি মাসে অধিবর্ষ দিনটি ছাড়াও অতিরিক্ত একটি দিন যোগ করা হয় এবং ওই বছর ফেব্রুয়ারি মাসে ৩০ দিন ছিল। এই তারিখটি জুলিয়ান পঞ্জিকার মধ্যে ফেব্রুয়ারি ২৯ এবং গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারে মার্চ ১১ তারিখ নির্দেশ করে। সুইডিশদের গ্রেগরিয়ান পঞ্জিকাতে পরিবর্তন সম্পন্ন হয় ১৭৫৩ সালে, ওই বছর ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ ১১ দিন বাদ দিয়ে এটি সম্পন্ন করা হয়।

    তবে ফেব্রুয়ারি ৩০ তারিখটি কিছু ক্যালেন্ডারে থাকলেও গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারে এটি ব্যবহার করা হয় না।

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…