এইমাত্র
  • বেনজীরের রিসোর্টের আয় যাবে সরকারি কোষাগারে
  • শিমুল-তানভীর-শিলাস্তির পর দায় স্বীকার বাবুর
  • ঝাল বেশি হওয়ায় কোরিয়ান নুডুলস বিক্রি বন্ধ করলো ডেনমার্ক
  • ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর নামে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণার ফাঁদ
  • মাহমুদউল্লাহর অবসর নিয়ে যা বললেন সাকিব
  • তানজিদ তামিমের বুদ্ধির প্রশংসায় আইসিসি
  • যেকোনো সময় সরকারের পতন ঘটতে পারে: দুদু
  • সড়কে যানজটের কথা অস্বীকার করলেন ওবায়দুল কাদের
  • নীরবে চলে গেলেন সোনালি দিনের চিত্রনায়িকা সুনেত্রা
  • বেতন-ভাতার দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ
  • আজ শনিবার, ১ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৫ জুন, ২০২৪
    শিক্ষাঙ্গন

    এসএসসির ফলাফলে কোন স্কুল সেরা?

    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ১২ মে ২০২৪, ০৪:২০ পিএম
    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ১২ মে ২০২৪, ০৪:২০ পিএম

    এসএসসির ফলাফলে কোন স্কুল সেরা?

    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ১২ মে ২০২৪, ০৪:২০ পিএম

    চলতি বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। ফলাফলের দিক থেকে শীর্ষে রয়েছে নরসিংদীর নাছিমা কাদির মোল্লা হাইস্কুল।

    পরীক্ষার্থীর তুলনায় সর্বোচ্চ সংখ্যক জিপিএ-৫ নিয়ে তালিকার শীর্ষে রয়েছে নাছিমা কাদির হাইস্কুল। স্কুলটির ২৮৫ জন শিক্ষার্থীর ২৮৪ জনই জিপিএ-৫ পেয়েছে এবং শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে।

    তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ঢাকার রাজউক উত্তরা মডেল স্কুলে ৭৮০ পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৭৫৮ জনই জিপিএ-৫ পেয়েছে এবং শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে।

    তৃতীয় অবস্থানে থাকা রাজধানীর হলিক্রস গার্লস হাইস্কুলে ২৩১ পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৮৫ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে এবং স্কুলটির পাসের হার ৯৯ দশমিক ৫৭ শতাংশ।

    চতুর্থ অবস্থানে থাকা শহীদ বীর উত্তম আনোয়ার গার্লস স্কুলে ৬৭৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৯৯ জন এবং স্কুলটির পাশের হার শতভাগ।

    পঞ্চম অবস্থানে থাকা আদমজী ক্যান্টনমেন্ট স্কুলে ৭৩৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬২২ জন এবং স্কুলটির পাসের হার শতভাগ।

    রোববার (১২ মে) প্রকাশিত এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলে দেখা যায়, সব বোর্ড মিলিয়ে গড় পাসের হার ৮৩.০৪ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি পাসের হার যশোর বোর্ডে। আর সবচেয়ে কম পাসের হার সিলেট বোর্ডে। তবে সবচেয়ে বেশি জিপিএ-৫ রয়েছে ঢাকা বোর্ডে।

    এবার এসএসসি, দাখিল, এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিল (ভোকেশনাল) পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ২৪ হাজার ১৯২ জন। গতবারের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থী কমেছে প্রায় ৪৮ হাজার।

    ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীন এসএসসির তত্ত্বীয় পরীক্ষা ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে ১২ মার্চ শেষ হয়। ব্যবহারিক পরীক্ষা শেষ হয় ২০ মার্চ। মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীন দাখিলের তত্ত্বীয় পরীক্ষা ১৪ মার্চ এবং ব্যবহারিক পরীক্ষা ২১ মার্চ শেষ হয়। আর কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীন এসএসসি ও ভোকেশনালের তত্ত্বীয় পরীক্ষা ১২ এবং ব্যবহারিক পরীক্ষা ২১ মার্চ শেষ হয়।

    সারা দেশে ২৯ হাজার ৭৩৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ৩ হাজার ৭০০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা দেয়। আর বিদেশের আট কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

    কোভিডের পর এবারই প্রথম পূর্ণাঙ্গ সিলেবাস, পূর্ণ নম্বর ও পূর্ণ সময়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। নিয়মানুযায়ী, এবারও পরীক্ষা শেষ হওযার ৬০ দিনের মধ্যে ফলাফল প্রকাশিত হলো।

    এমএইচ

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…