এইমাত্র
  • বেনজীরের রিসোর্টের আয় যাবে সরকারি কোষাগারে
  • শিমুল-তানভীর-শিলাস্তির পর দায় স্বীকার বাবুর
  • ঝাল বেশি হওয়ায় কোরিয়ান নুডুলস বিক্রি বন্ধ করলো ডেনমার্ক
  • ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর নামে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণার ফাঁদ
  • মাহমুদউল্লাহর অবসর নিয়ে যা বললেন সাকিব
  • তানজিদ তামিমের বুদ্ধির প্রশংসায় আইসিসি
  • যেকোনো সময় সরকারের পতন ঘটতে পারে: দুদু
  • সড়কে যানজটের কথা অস্বীকার করলেন ওবায়দুল কাদের
  • নীরবে চলে গেলেন সোনালি দিনের চিত্রনায়িকা সুনেত্রা
  • বেতন-ভাতার দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ
  • আজ শনিবার, ১ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৫ জুন, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    মাদ্রাসা ছাত্র হত্যা

    দীর্ঘ সাড়ে ১০ মাস পর হত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার

    আব্দুল মান্নান, নওগাঁ প্রতিনিধি প্রকাশ: ১৭ মে ২০২৪, ০৮:৫৮ পিএম
    আব্দুল মান্নান, নওগাঁ প্রতিনিধি প্রকাশ: ১৭ মে ২০২৪, ০৮:৫৮ পিএম

    দীর্ঘ সাড়ে ১০ মাস পর হত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার

    আব্দুল মান্নান, নওগাঁ প্রতিনিধি প্রকাশ: ১৭ মে ২০২৪, ০৮:৫৮ পিএম

    নওগাঁর বদলগাছীতে চাঞ্চল্যকর মাদ্রাসা ছাত্র সাকিব হত্যা মামলার প্রধান আসামি আকবরকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।

    গ্রেপ্তারকৃত আসামি আকবর হোসেন উপজেলার জাইজাতা গ্রামের মো: হেলাল হোসেনের ছেলে। দীর্ঘ ১০ মাস ২০ দিন পর তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। এ নিয়ে মামলার পাঁচ আসামিই গ্রেপ্তার হয়েছে পুলিশের হাতে।

    শুক্রবার ( ১৭ মে) দুপুরে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহবুবুর রহমান তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে বৃহস্পতিবার (১৬ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আকবরকে তার নিজ বাড়ী থেকে গ্রেপ্তার করেন পুলিশ।

    থানা পুলিশ এবং মামলা সূত্রে জানা যায়, নিহত সাকিব হোসেন মহাদেবপুর উপজেলার ফতেপুর গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে। সাকিব ফতেপুর মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র ছিলেন। গত ১৯ শে জুন সাকিব ভ্যান নিয়ে বাহিরে যায়। বাড়িতে ফিরে না আসলে পরিবার থানায় জিডি করে। তার এক সপ্তাহ পর মাতাজিহাট রোডে গাবনা ভোবন ব্রিজের নিচে স্থানীয়রা একটি লাশ দেখতে পায়। পরে থানায় জানালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। পরিবার লাশের পরিচয় সনাক্ত করে থানায় এজাহার দাখিল করে। এর ২৪ ঘন্টার মধ্যে থানা পুলিশ সাকিব হত্যার রহস্য উদঘাটনসহ হত্যায় জড়িত ৪ জনকে গ্রেপ্তার করে।

    ছিনতাই এর উদ্দেশ্যে মাদ্রাসার ওই ছাত্রকে হত্যা করা হয়েছে বলেও তারা জানান। মামলার প্রধান আসামি আকবর হোসেন দীর্ঘ দিন দেশের বিভিন্ন জায়গায় পালিয়ে থাকে। ফলে আদালত আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে। তথ্য প্রযুক্তি এবং গোপন সংবাদের ভিক্তিতে মামলার প্রধান আসামি আকবর নিজ বাড়িতে অবস্থান করছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

    এমআর

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…