এইমাত্র
  • বেনজীরের রিসোর্টের আয় যাবে সরকারি কোষাগারে
  • শিমুল-তানভীর-শিলাস্তির পর দায় স্বীকার বাবুর
  • ঝাল বেশি হওয়ায় কোরিয়ান নুডুলস বিক্রি বন্ধ করলো ডেনমার্ক
  • ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর নামে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণার ফাঁদ
  • মাহমুদউল্লাহর অবসর নিয়ে যা বললেন সাকিব
  • তানজিদ তামিমের বুদ্ধির প্রশংসায় আইসিসি
  • যেকোনো সময় সরকারের পতন ঘটতে পারে: দুদু
  • সড়কে যানজটের কথা অস্বীকার করলেন ওবায়দুল কাদের
  • নীরবে চলে গেলেন সোনালি দিনের চিত্রনায়িকা সুনেত্রা
  • বেতন-ভাতার দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ
  • আজ শনিবার, ১ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৫ জুন, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    মেয়রকে মারধর, এমপির পিএসসহ ১৯ জনের নামে মামলা

    উজ্জ্বল অধিকারী, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি প্রকাশ: ১৭ মে ২০২৪, ০৯:০৭ পিএম
    উজ্জ্বল অধিকারী, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি প্রকাশ: ১৭ মে ২০২৪, ০৯:০৭ পিএম

    মেয়রকে মারধর, এমপির পিএসসহ ১৯ জনের নামে মামলা

    উজ্জ্বল অধিকারী, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি প্রকাশ: ১৭ মে ২০২৪, ০৯:০৭ পিএম

    সিরাজগঞ্জের বেলকুচি পৌর মেয়র সাজ্জাদুল হক রেজা ও তার শিশু ছেলেসহ সমর্থকদের মারধরের অভিযোগে সংসদ সদস্য আব্দুল মমিন মন্ডলের ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) সেলিম সরকারকে প্রধান আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

    এছাড়া সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ আলী, পৌর কাউন্সিলর শিপন ও হাফিজুরসহ ১৯ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা ৩০/৪০ জনকে আসামি করা হয়।

    শুক্রবার (১৭ মে) বিকেলে মেয়র সাজ্জাদুল হক রেজা নিজে বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। ইতিমধ্যে এ মামলায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তাররা হলেন- গাড়ামাসী গ্রামের মৃত আব্দুল মতিন প্রামাণিকের ছেলে শাকিল (২৫), একই গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে জুবায়ের (১৮) ও শেরনগর গ্রামের আব্দুল হাইয়ের ছেলে জাফর শেখ (২৫)।

    বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনিছুর রহমান মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মেয়র নিজে বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

    আমরা আগেই পাঁচ জনকে আটক করেছিলাম। তাদের মধ্যে দুজন অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় যাচাই-বাছাই করে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। অপর তিনজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

    এদিকে মেয়রের ওপর হামলার ঘটনায় শুক্রবার বিকেলে বেলকুচিতে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে। বিক্ষোভ মিছিলটি পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এসময় মেয়রের ওপর হামলার সুষ্ঠু বিচার দাবি করা হয়।

    এর আগে বৃহস্পতিবার (১৬ মে) দুপুরে আলহাজ্ব সিদ্দিক উচ্চ বিদ্যালয়ে আসা তদন্ত কমিটির সামনে এমপির পিএস সেলিম সরকার ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ আলীর নেতৃত্বে মেয়রের ওপর হামলা চালানো হয়। হামলার ছবি তুলতে গেলে আবু মুছা নামে এক সাংবাদিককেও মারপিট করে মোবাইল ফোন কেড়ে নেয় এমপির অনুসারীরা।

    এমআর

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…