এইমাত্র
  • বেনজীরের রিসোর্টের আয় যাবে সরকারি কোষাগারে
  • শিমুল-তানভীর-শিলাস্তির পর দায় স্বীকার বাবুর
  • ঝাল বেশি হওয়ায় কোরিয়ান নুডুলস বিক্রি বন্ধ করলো ডেনমার্ক
  • ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর নামে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণার ফাঁদ
  • মাহমুদউল্লাহর অবসর নিয়ে যা বললেন সাকিব
  • তানজিদ তামিমের বুদ্ধির প্রশংসায় আইসিসি
  • যেকোনো সময় সরকারের পতন ঘটতে পারে: দুদু
  • সড়কে যানজটের কথা অস্বীকার করলেন ওবায়দুল কাদের
  • নীরবে চলে গেলেন সোনালি দিনের চিত্রনায়িকা সুনেত্রা
  • বেতন-ভাতার দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ
  • আজ শনিবার, ১ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৫ জুন, ২০২৪
    রাজধানী

    ডিবি কার্যালয়ে যাওয়ার কারণ জানালেন মামুনুল হক

    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ১৮ মে ২০২৪, ০৮:৩৭ পিএম
    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ১৮ মে ২০২৪, ০৮:৩৭ পিএম

    ডিবি কার্যালয়ে যাওয়ার কারণ জানালেন মামুনুল হক

    সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক প্রকাশ: ১৮ মে ২০২৪, ০৮:৩৭ পিএম
    ছবি: সংগৃহীত

    হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হক ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয় থেকে বের হয়েছেন। শনিবার (১৮ মে) সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটে ডিবি কার্যালয় থেকে বের হয়ে যান। এর আগে বিকালের দিকে ডিবি কার্যালয়ে প্রবেশ করেন তিনি।

    এ সময় তিনি সাংবাদিকদের জানান, তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোন নেওয়ার জন্য তিনি ডিবি কার্যালয়ে এসেছিলেন।

    ডিবি কার্যালয়ে মামলা সংক্রান্ত কোনো বিষয় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাকে ডিবি ডাকেনি এবং মামলা সংক্রান্ত কোনো বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করিনি। আমাকে যখন গ্রেফতার করা হয়েছিল তখন মামলার আলামত হিসেবে আমার মোবাইল ফোনটি জব্দ করা হয়েছিল। সেই মোবাইল ফোনটি ফিরে পেতে আমি আজ ডিবি কার্যালয়ে এসেছি।

    ডিবি সূত্রে জানা যায়, তিনি যখন গ্রেফতার হয়েছিলেন তখন তার মোবাইল ফোনটি জব্দ করা হয়েছিল। জব্দ করা মোবাইল ফোনটি ফিরে পেতে তিনি ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদের কাছে এসেছিলেন। তবে তার মোবাইলটি ডিবি হস্তান্তর করেছে কি না, তা এখনো জানা যায়নি।

    উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের রয়েল রিসোর্টে এক নারীর সঙ্গে মাওলানা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে।

    খবর পেয়ে হেফাজতের স্থানীয় নেতাকর্মীরা রিসোর্টে গিয়ে ভাঙচুর চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যান। ঘটনার পর থেকে ঢাকার মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসায় অবস্থান করেন মামুনুল হক।

    ১৫ দিন পর ১৮ এপ্রিল ওই মাদ্রাসা থেকে মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে গত ৩ মে সকালে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান তিনি।

    এমএইচ

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…