এইমাত্র
  • আজ মুসলমানদের সৌভাগ্যের রজনী, পবিত্র শবে বরাত
  • মির্জাপুর পরিদর্শনে দেশের ফার্স্ট লেডি ড. রেবেকা সুলতানা
  • আওয়ামী লীগ থেকে পদত্যাগ করলেন স্বামী-স্ত্রী
  • মিয়ানমার অনেক আগে থেকেই বাংলাদেশের সঙ্গে যুদ্ধ করতে চাচ্ছে: র‌্যাব ডিজি
  • অবশেষে মায়ের কাছে নাভালনির লাশ হস্তান্তর
  • জাতীয় পার্টিকে বলা হয় গৃহপালিত রাজনৈতিক দল: জিএম কাদের
  • মার্কিন প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বিএনপির নেতাদের বৈঠক
  • সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  • ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা
  • গালে হাত দিয়ে একাকিত্ব প্রকাশ করলেন মাহি
  • আজ রবিবার, ১২ ফাল্গুন, ১৪৩০ | ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    ফেনীর ফুলগাজী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চালু হয়েছে আল্ট্রাসনোগ্রাম সেবা

    মোহাম্মদ ইকবাল হোসাঈন, ফেনী প্রতিনিধি প্রকাশ: ১১ ডিসেম্বর ২০২৩, ১১:৫৫ পিএম
    মোহাম্মদ ইকবাল হোসাঈন, ফেনী প্রতিনিধি প্রকাশ: ১১ ডিসেম্বর ২০২৩, ১১:৫৫ পিএম

    ফেনীর ফুলগাজী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চালু হয়েছে আল্ট্রাসনোগ্রাম সেবা

    মোহাম্মদ ইকবাল হোসাঈন, ফেনী প্রতিনিধি প্রকাশ: ১১ ডিসেম্বর ২০২৩, ১১:৫৫ পিএম

    দীর্ঘ ২১ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চালু হয়েছে আল্ট্রাসনোগ্রাম সেবা কার্যক্রম। ২০০২ সালে হাসপাতালটি চালু হওয়ার পর থেকে এ সেবার জন্য জনসাধারণকে জেলা শহর অথবা উপজেলার বিভিন্ন ক্লিনিকের দ্বারস্থ হতে হয়েছে।

    জানা যায়, ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ৩১ শয্যা বিশিষ্ট ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। আল্ট্রাসনোগ্রাম সেবা না থাকায় হাসপাতালটিতে আগত সেবাগ্রহিতারা বিড়ম্বনায় ও বেকায়দায় পড়তে থাকেন। সেবাটির জন্য জেলা শহর অথবা উপজেলার বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে গিয়ে প্রতারণার স্বীকার হতো। তবে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এখনো এক্স-রে, ডেন্টাল ও ল্যাব টেকনিশিয়ান নেই দীর্ঘদিন ধরে। ফলে টেকনিশিয়ানের অভাবে যন্ত্রগুলো নষ্ট হওয়ার উপক্রম হচ্ছে। সম্প্রতি এই হাসপাতালে চালু হয় প্রসূতি ও সিজারিয়ান সেবা কার্যক্রম। এরই ধারাবাহিকতায় হাসপাতালটিতে চালু হয়েছে আল্ট্রাসনোগ্রাম সেবা কার্যক্রম। দীর্ঘ ২১ বছর পর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবাটি চালু হওয়ায় স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন স্থানীয়রা।

    ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ রুবাইয়াত বিন করিম জানান, গর্ভকালীন সময়ে প্রায় সকল নারীর আল্ট্রাসনোগ্রাম করতে হয়। আমি যোগদানের পর থেকে সেবা সম্প্রসারণের চেষ্টা করে যাচ্ছি। সিজার, আল্ট্রাসনোগ্রাম ও প্যাথেলোজি কার্যক্রম চালু করেছি। হাসপাতালে বর্তমানে সেবার মান বাড়ায় সেবাগ্রহীতার সংখ্যা ও প্রত্যাশাও বেড়েছে। প্রত্যাশা ও চেষ্টার সম্মিলনে হাসপাতালটি এগিয়ে যাচ্ছে।

    এফএস

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…