এইমাত্র
  • ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের জন্য দুঃসংবাদ
  • জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়কে আধুনিক বিশ্ববিদ্যালয় করা হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী
  • ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’ নিয়ে নতুন তথ্য দিল আবহাওয়া অফিস
  • এমপি আনার হত্যা: হারুনের নেতৃত্বে কলকাতা যাচ্ছে ডিবির দল
  • সাগরে নিম্নচাপ, বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত
  • গরমে পুড়ছে ভারত-পাকিস্তান, সিন্ধুতে তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি
  • নওগাঁয় অভ্যন্তরীন সকল বাস চলাচল বন্ধ
  • ৪১ দশ‌মিক ৭ ডিগ্রী তাপমাত্রায় পুড়ছে চুয়াডাঙ্গা
  • শরীয়তপুরে অস্ত্র ও মাদকসহ গৃহবধূ আটক, স্বামী পলাতক
  • রাতেই আসতে পারে মহাবিপদ সংকেত: দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী
  • আজ শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ | ২৫ মে, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    দুগ্ধপোষ্য শিশুসহ প্রসূতিকে জেলে পাঠানোর ঘটনায় এসআই প্রত্যাহার

    শাহীন মাহমুদ রাসেল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, কক্সবাজার প্রকাশ: ২৩ মার্চ ২০২৩, ০৮:১১ পিএম
    শাহীন মাহমুদ রাসেল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, কক্সবাজার প্রকাশ: ২৩ মার্চ ২০২৩, ০৮:১১ পিএম

    দুগ্ধপোষ্য শিশুসহ প্রসূতিকে জেলে পাঠানোর ঘটনায় এসআই প্রত্যাহার

    শাহীন মাহমুদ রাসেল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, কক্সবাজার প্রকাশ: ২৩ মার্চ ২০২৩, ০৮:১১ পিএম

    তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে স্বামীকে না পেয়ে দুগ্ধপোষ্য শিশুসহ এক প্রসূতিকে আটক করে পরে মামলা দিয়ে আদালতে পাঠানোর ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে কক্সবাজারের ঈদগাঁও থানার এসআই মো. গিয়াস উদ্দিনকে জেলা পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

    বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো রফিকুর ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বিষয়টি পুলিশ সুপার নিজেই গুরুত্ব সহকারে দেখছেন বলেও জানান তিনি।

    এদিকে গত চার দিনের ব্যবধানে দুগ্ধপোষ্য সন্তানসহ একজন নারীকে জেলহাজতে প্রেরণ ও এক স্কুলছাত্রকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় থানার ওসিকে দায়ী করেন স্থানীয়রা।

    তারা ঈদগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. গোলাম কবিরের প্রত্যাহার চেয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের ঈদগাঁও বাসস্টেশনে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে স্থানীয় সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়।

    মানববন্ধন-পরবর্তী প্রতিবাদসভায় বক্তব্য দেন ঈদগাঁও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান ইমরুল হাসান রাশেদ, জেলা যুবলীগ নেতা হুমায়ুন কবির চৌধুরী হিমু, সদর উপজেলা যুবলীগ নেতা মিজানুল হক এবং নির্যাতিতা ফরিদা ইয়াসমিন।

    এ সময় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, ধর্মীয় নেতা, সামাজিক সংগঠনের নেতারাসহ কয়েক হাজার নারী-পুরুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে কর্মসূচিতে অংশ নেন।

    স্থানীয়দের অভিযোগ, ঈদগাঁও থানার ওসি মো. গোলাম কবির যোগদানের পর থেকে গণহারে চাঁদাবাজি, ক্ষমতার অপব্যবহার, মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি, অপরাধী চক্রের সঙ্গে সংখ্য গড়ে তুলে নানা অপকর্মে জড়িয়ে পড়েন। এসবের বিরুদ্ধে ফুঁসে ওঠে স্থানীয় জনতা।

    সম্প্রতি দুটি ঘটনা ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়। গত ২০ মার্চ জালালাবাদে তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে স্বামীকে না পেয়ে স্ত্রী ও দুগ্ধপোষ্য দুই বাচ্চাসহ তিনজনকে আটক করে পরে মামলা দিয়ে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ। পরদিন বাচ্চাসহ নারী ফরিদা ইয়াসমিন জামিনে মুক্তি পান।

    এরপর ২১ মার্চ রাতে সাদা পোশাকের সাত পুলিশ সদস্য বাজারে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে এক ট্রাকচালককে বেধড়ক পিটুনির সময় পথচারী এক এসএসসি পরীক্ষার্থী প্রতিবাদ করে। একপর্যায়ে তারা দলবদ্ধ হয়ে ওই স্কুলছাত্রের ওপর হামলে পড়ে তাকে মারধরে আহত করে। এ ঘটনায় জড়িত ওই সাত পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলার সুপারিশ করেছেন ওসি।

    এ দুই ঘটনায় ঈদগাঁওয়ের সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে। এমন নানা বিতর্কের কারণে ওসি গোলাম কবিরসহ জড়িত পুলিশ সদস্যদের শাস্তি ও প্রত্যাহার চেয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। মিছিলের পর বক্তব্যে বক্তারা হুমকি দিয়ে বলেন, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিতর্কিত ওসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা এবং প্রত্যাহার করা না হলে বৃহত্তম আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে।

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…