এইমাত্র
  • আজ দে‌শের স‌র্বোচ্চ তাপমাত্রা চুয়াডাঙ্গায়
  • বাংলাদেশি পর্যটকদের ৩ দিন ভারত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা
  • চার বিভাগে হিট অ্যালার্ট জারি আবহাওয়া অফিসের
  • খারকিভে চলছে ‘কঠিন লড়াই’: জেলেনস্কি
  • সবুজবাগে নির্মাণাধীন ভবনের মাচা ভেঙে নিহত ৩ শ্রমিক
  • আবারো চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি ছুঁই ছুঁই
  • চুয়াডাঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাইসাইকেল আরোহী নিহত
  • সিরাজগঞ্জে কভার্ডভ্যানে মিলল ২১৬ কেজি গাঁজা, গ্রেপ্তার ২
  • টাঙ্গাইলের ১৬ সরকারি অফিসে ওড়ে না জাতীয় পতাকা
  • ১০ হাজারের বেশি বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাবে যুক্তরাজ্য
  • আজ শনিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ | ১৮ মে, ২০২৪
    বিনোদন

    বিদ্যুৎ গ্যাস পানি বিল দেয় না পরিচালক সমিতি

    বিনোদন প্রতিবেদক প্রকাশ: ২৩ মে ২০২৩, ০৫:০৫ পিএম
    বিনোদন প্রতিবেদক প্রকাশ: ২৩ মে ২০২৩, ০৫:০৫ পিএম

    বিদ্যুৎ গ্যাস পানি বিল দেয় না পরিচালক সমিতি

    বিনোদন প্রতিবেদক প্রকাশ: ২৩ মে ২০২৩, ০৫:০৫ পিএম

    কেপিআইভুক্ত রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ফিল্ম ডেভলপমেন্ট কর্পোরেশনের (বিএফডিসি) অভ্যন্তরে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অন্যান্য পেশাজীবী সংগঠনের সমিতির অফিস স্থাপনের বৈধতা নিয়ে শোবিজ অঙ্গনসহ দেশের সর্বস্তরের মানুষের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। স্পর্শকাতর কেপিআই এলাকার অভ্যন্তরে বিভিন্ন সমিতির অফিস কীভাবে আর কোন যুক্তিতে থাকে এটা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সাধারণ মানুষ।

    এদিকে, এফডিসি'র মত রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরে পরিচালক সমিতিসহ বিভিন্ন সমিতির অফিস থাকার কারণে কেপিআই নীতিমালা ভঙ্গের পাশাপাশি সরকারি কাজে ব্যাঘাত সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করছেন সুধীজন। যুগের পর যুগ সমিতির নামে সরকারি জায়গা দখল করে আসলেও এই নিয়ে খোদ এফডিসি কর্তৃপক্ষই নীরব ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। এটা নিয়েও প্রশ্ন ওঠেছে বিভিন্ন মহলে।

    জানা গেছে, চলচ্চিত্র নির্মাণে শুটিং ফ্লোর, লাইট, ক্যামেরা, এডিটিং প্যানেল, ডাবিং থিয়েটার ভাড়া দেওয়াসহ বিভিন্ন প্রযুক্তি সুবিধা প্রদানের জন্যই বিএফডিসি'র প্রতিষ্ঠা করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। চলচ্চিত্র নির্মাণের সাথে সংশ্লিষ্ট শিল্পী, নির্মাতা, কলাকুশলীদের টেকনিক্যাল সাপোর্ট প্রদানের উদ্দেশ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এফডিসির প্রতিষ্ঠা করলেও এটি এখন বিভিন্ন সমিতির কার্যক্রম, অসামাজিক কার্যকলাপ আর আড্ডার আখড়ায় পরিণত হয়েছে। এফডিসির মতো গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানে কর্তৃপক্ষের সঠিক তদারকির অভাবেই অবৈধভাবে দখল করে রাখা সরকারি জায়গায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠা করা সমিতির স্থাপনাগুলোর নেতারা তাদের সাংগঠনিক কার্যকলাপ পরিচালনা করে আসছে।

    চলচ্চিত্র নির্মাণ জ্যামিতিক হারে কমে আসাতে এই সমিতিগুলোর কার্যকারিতা নিয়েও সাধারণ মানুষের মাঝে বিভিন্ন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। কেপিআই ভুক্ত রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানে কোন নীতিমালার আলোকে পরিচালক সমিতিসহ বিভিন্ন সমিতি দীর্ঘদিন যাবত সরকারি স্থাপনা দখল করে আছে এবং এর বৈধতা কতটুকু - এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে বিএফডিসির জন সংযোগ কর্মকর্তা হিমাদ্রি বড়ুয়া বলেন, চলচ্চিত্রের স্বর্ণালী যুগের সময় পরিচালক, শিল্পী ও কলাকুশলীদের এফডিসিতে নিয়মিত যাতায়াতের অনেক বেশি প্রয়োজনীয়তা ছিলো। নির্মাতাদের মেধার উৎকর্ষতার জন্য তখন ডিরেক্টরস স্টাডি রুম বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু পরবর্তীতে তারা এটিকে সমিতির অফিস বানিয়ে ফেলে। রাষ্ট্রীয় অন্যান্য সকল কেপিআইভুক্ত প্রতিষ্ঠানের মতো এফডিসিতেও একই নিয়ম প্রযোজ্য। দেশের অন্যসব কেপিআইভুক্ত এলাকার মত এফডিসিতেও একই নিয়ম প্রযোজ্য থাকুক সেটা আমরাও চাই। চলচ্চিত্র নির্মাণের সাথে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রপস বা সরঞ্জাম রাখার জন্য আমরা স্টোর রুম ভাড়া দিয়ে থাকি।

    এফডিসির এই কর্মকর্তা আরো বলেন, বছরের পর পরিচালক সমিতি বিদ্যুৎ বিল ও পানির বিল না দেওয়াতে এফডিসির কার্যক্রম পরিচালনা করতেও হিমশিম খেতে হচ্ছে। এফডিসির অভ্যন্তরে পরিচালক সমিতিসহ অন্যান্য সমিতির অফিস না থাকলে এফডিসি কর্তৃপক্ষ তাদের কার্যক্রম আরও সহজে পরিচালনা করতে সক্ষম হতো বলেও জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এফডিসির বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা। কেপিআইভুক্ত রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরে বিভিন্ন সমিতির অফিস থাকার বৈধতার বিষয়ে জানার জন্য তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিবের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। দেশের সকল কেপিআইভুক্ত এলাকার সাথে এফডিসির মতো কেপিআইভুক্ত এলাকায় দুই নিয়ম থাকবে নাকি একই নিয়ম থাকবে সেই বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মহলের কার্যকর পদক্ষেপের অপেক্ষায় আছেন দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণ।

    আরআইআর

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…