এইমাত্র
  • ঈদুল আজহাতেই রিজার্ভ বাড়ল ৩১ কোটি ৮৩ লাখ ডলার
  • অস্ট্রেলিয়াকে ১৪১ রানের টার্গেট দিল টাইগাররা
  • হজের প্রথম ফিরতি ফ্লাইটে দেশে ফিরলেন ৪১৭ হাজি
  • টসে হেরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
  • দুপুরে ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
  • ঈদে ৭ খামার থেকে ৭০ লাখ টাকার গরু কেনেন সেই ইফাত
  • এরপর গুলি করলে আমরাও পাল্টা গুলি করব: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • সুনামগঞ্জ পুলিশের উদ্যোগে বন্যার্তদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ
  • শ্রমিক-মালিক স্বার্থ রক্ষায় শ্রম আইন হালনাগাদ হচ্ছে: শ্রম প্রতিমন্ত্রী
  • সৌদিতে মৃত হজযাত্রীর সংখ্যা ৯০০ ছাড়িয়েছে, নিখোঁজ অনেকে
  • আজ শুক্রবার, ৭ আষাঢ়, ১৪৩১ | ২১ জুন, ২০২৪
    জাতীয়

    যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসা নীতি নিয়ে চিন্তার কিছুই নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর প্রকাশ: ২৫ মে ২০২৩, ০৩:১২ পিএম
    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর প্রকাশ: ২৫ মে ২০২৩, ০৩:১২ পিএম

    যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসা নীতি নিয়ে চিন্তার কিছুই নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর প্রকাশ: ২৫ মে ২০২৩, ০৩:১২ পিএম

    যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসানীতি প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘আমরা আমাদের যে অঙ্গীকার, সুষ্ঠু-সুন্দর নির্বাচন আমরা করতে চাই এটাকেই তারা সমর্থন দিয়েছেন। এতে চিন্তার কিছুই নেই।’

    বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

    ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমাকে চিঠি পাঠিয়েছিলেন, তাতে প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করা হয়েছে। অতএব আমরা আমাদের যে অঙ্গীকার, সুষ্ঠু-সুন্দর নির্বাচন আমরা করতে চাই এটাকেই তারা সমর্থন দিয়েছেন। এতে চিন্তুার কিছুই নেই।’

    এর আগে বুধবার (২৪ মে) রাতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী নতুন ভিসা নীতি ঘোষণা করেন। সেখানে বলা হয়েছে নির্বাচনে কারচুপি বা সহযোগিতাকারীকে ভিসা দেবে না যুক্তরাষ্ট্র।

    এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, আমরা যে নীতি প্রকাশ করলাম, সেটি প্রধানমন্ত্রীর যে আগ্রহ অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন করার, সেটিকে আরও শক্তিশালী অবস্থানে নেওয়ার জন্য এটি ঘোষণা করা হয়েছে। সুতরাং তারা যেটি করেছে ভালো বলে তিনি জানান।

    নির্বাচন নিয়ে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র একমত হওয়ার পরও কেন ভিসা নীতি ঘোষণা করা হলো, জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি ভালো। দেখেন না দুষ্ট লোকেরা এখনো জ্বালাও-পোড়াও করে। গত পরশু পুলিশকে পিঠিয়েছে এবং বাস জ্বালিয়েছে। তারা কিছুটা সাবধান হবে। ভিসা কড়াকড়ি শুধু সরকারি দলের জন্য নয়, বিরোধী দলের জন্যও প্রযোজ্য হবে।

    ওই চিঠি ৩ মে পাঠানো হলেও এত দিন জানাননি কেন, জানতে চাইলে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘তারা জানাক। তাদের নীতি আমরা জানাবো কেন?

    পররাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি করেন যে আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের ধারক ও বাহক। গত ১৪ বছরে আওয়ামী লীগ আছে বলেই গণতন্ত্র আছে। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সরকার বদল হয়েছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন, সেটি প্রধানমন্ত্রী যা চাইছেন সেটিকে জোরালোভাবে সমর্থন করে বলে তিনি জানান।

    তিনি জানান যে মার্কিন সরকার তাদের যে ভিসা নীতি গ্রহণ করেছেন, সেটির সঙ্গে আমরা যেটি চাই সেটির সঙ্গে মিল আছে। আমরা চাই সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন এবং এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বদ্ধপরিকর। কেউ কেউ অভিযোগ করে যে রাতের অন্ধকারে ভোট হয়ে যায় এবং সে কারণে আমরা স্বচ্ছ ব্যালট বক্স করেছি।

    তিনি বলেন, তবে প্রায় আমি বলে থাকি, সরকারের আন্তরিকতা থাকলে এবং নির্বাচন কমিশনের ইচ্ছা থাকলে অনেক সময় অহিংস নির্বাচন হয় না। অনেক সময় অসুবিধা হয়। একটি হত্যাযজ্ঞ ছাড়া অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চাইলে সব দল ও মত, সরকারি দল, বিরোধী দল, এনজিও, সুশীল সমাজ সবার সহযোগিতা দরকার। আমেরিকা যে নীতিটি ঘোষণা করেছে, সেখানে ওই কথা বলা হয়েছে।’

    বাড়তি চাপ অনুভব করছেন কি না, জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, একদম না। তারা তাদের কাজ করেছে; আমরা আমাদের কাজ করবো।

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    চলতি সপ্তাহে সর্বাধিক পঠিত

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…