এইমাত্র
  • আফগানিস্তানে আকস্মিক বন্যায় ৩৩ জনের মৃত্যু
  • হাসপাতালের প্রিজন সেলে আসামির হাতে আসামি খুন
  • মুক্তিপণ নিয়ে ফেরার পথে ৮ জলদস্যু গ্রেপ্তার
  • বাংলাদেশে পালিয়ে এলো মিয়ানমার বিজিপির আরও ৯ সদস্য
  • নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে হলো মঙ্গল শোভাযাত্রা
  • কুষ্টিয়ার মিরপুরে আ.লীগ নেতার গুলিতে ২ জন গুলিবিদ্ধ, আটক ২
  • অবকাঠামো বিহীন টেকনাফ সমুদ্র সৈকতে পর্যটকের ঢল
  • উত্তেজনার মধ্যেই ইসরায়েলে রকেট হামলা হিজবুল্লাহর
  • রাজধানীতে অতিরিক্ত মদপানে ও লেভেলের শিক্ষার্থীর মৃত্যু
  • ফিলি’স্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিতে ‘প্রস্তুত’ ইউরোপের যে ৩ দেশ
  • আজ সোমবার, ২ বৈশাখ, ১৪৩১ | ১৫ এপ্রিল, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    অতিরিক্ত তাপদাহে জনজীবন বিপর্যস্ত

    মাহমুদুর রহমান, বরগুনা প্রতিনিধি প্রকাশ: ৭ জুন ২০২৩, ০৩:০২ পিএম
    মাহমুদুর রহমান, বরগুনা প্রতিনিধি প্রকাশ: ৭ জুন ২০২৩, ০৩:০২ পিএম

    অতিরিক্ত তাপদাহে জনজীবন বিপর্যস্ত

    মাহমুদুর রহমান, বরগুনা প্রতিনিধি প্রকাশ: ৭ জুন ২০২৩, ০৩:০২ পিএম

    যুগ যুগ ধরে ঋতুর পরিবর্তনের সাথে সাথে পরিবর্তন হয়ে আসছে আবহাওয়া। কিন্তু বিগত কিছু দিন ধরে প্রকৃতির বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিচ্ছে। জৈষ্ঠ্যের শেষ প্রান্তে কিছুদিন পরে আষাঢ়ের শুরু। অথচ আষাঢ় মাসের পূর্বাভাসে আবহাওয়ার নেই কোন পরিবর্তন।

    উপকূলীয় অঞ্চল বরগুনার নেই কোন বৃষ্টি, নেই কোন বাতাস, খর তাপে মাঠ ঘাট শুকিয়ে গেছে, প্রচণ্ড গরম, কাঠফাটা রোদ অব্যাহত তাপদাহে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে মানুষের জনজীবন। এই গরম আরও কয়েক দিন অব‍্যাহত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। রাস্তা ও বাজার ঘাট যেন জনশূন্য হয়ে পড়েছে। তবে তীব্র গরমে অসংখ্য খেটে-খাওয়া মানুষগুলোর যেন আরও বেশি অসহনীয় অবস্থা তৈরি হচ্ছে।

    বুধবার (০৭ জুন) জেলার বিভিন্ন স্থানে ঘুরে দেখা যায় শহরে গরমের তাপমাত্রা ও ধুলাবালির কারণে শ্রমিকসহ সর্বস্তরের মানুষের কাজকর্মে দেখা দিয়েছে অনীহা। তবুও বেঁচে থাকার এই জীবন যুদ্ধে ৩৮-৪০ ডিগ্রি° সেলসিয়াস তাপমাত্রায় প্রচণ্ড গরমেও মাথার ঘাম ফেলে জীবিকার তাগিদে তার কাজ যাচ্ছে। এই গরমে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। তাদের পড়ালেখায় সমস্যা হচ্ছে।

    বিষখালী, বলেশ্বর ও পায়রা নদীর পাড়ে গিয়ে দেখা গেছে গরম থেকে বাঁচতে এবং নিজেকে প্রশান্তি দিতে গোসল করার জন্য কিশোর থেকে বৃদ্ধ বিড় জমাচ্ছে নদীর পাড়ে। তারা বলেন প্রচন্ড গরমে বাড়ির পুকুরের পানিও গরম হয়ে গেছে তাই একটু ঠান্ডা পানিতে গোসল করতে এসেছি ।

    রিকশা চালক সেন্টু মিয়া বলেন, সকাল থেকে রিকশা চালাচ্ছি ,গরমে হাঁপিয়ে যাচ্ছি তবুও কিছু করার নেই কারন সংসারের বউ, ছেলে-মেয়ে তাকিয়ে আছে কখন আমি বাজার নিয়ে যাব, তারপর রান্না করবে।

    শরবত বিক্রেতা নয়ন খান বলেন, প্রতিদিনই আমার বেচাকিনা ভালো হয়। তবে এতো গরম কোথাও দাঁড়ানোর অবস্থা নেই। সব জায়গাতেই গরম আর গরম।

    সচেতন মহলের অনেকেই জানান, দিনভর প্রচণ্ড রোদ ও গরমে শ্রমজীবী মানুষের সাথে অনেক মানুষ সহনীয় আচরণ করে এবং শ্রমজীবী মানুষদের সময় মতো ন্যায্য বেতন পরিশোধ করাই কাম্য। তাদের পরিবারের মুখে হাসি ফোটানো জন‍্য প্রচণ্ড গরমে বাধ্য হয়ে কাজ করে যাচ্ছে। নিশ্চয় এই সকল মানুষদের আমাদের সবার সম্মান করা উচিত।

    বরগুনা পৌর শহরের বাসিন্দা সমাজ কর্মী মহিউদ্দিন অপু বলেন, শহরে পানির সংকট দূরীভূত করার জন‍্য টিউবওয়েলের পানির আশা করা হয় কিন্তু বেশির ভাগ টিউবওয়েলগুলো নষ্ট। যা আছে সেগুলোতে পানি লবণাক্ততা, আর্সেনিক, যা খাওয়া ও ব‍্যবহারে অযোগ্য। সম্প্রতি সরকার এবং বিভিন্ন এনজিও সংস্থার উদ্যোগে পানির ট‍্যাংক বেশি বেশি বিতরণ করা উচিত।

    বরগুনা পৌর মেয়র অ্যাড. কামরুল আহসান মহারাজ বলেন, প্রচন্ড গরমে সকলের কর্মস্থলই বেহাল অবস্থা হয়ে দাঁড়িয়েছে। আবহাওয়া বার্তা অনুযায়ী আরো কিছু দিন এরকম তাপমাত্রা থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। তবুও পেটের টানে সকলেই ছুটে চলছেন কর্মের টানে।

    তিনি আরো বলেন, পৌর শহরের বিভিন্ন স্থানে বর্তমানে ১২০০-১৩০০ ফুট লেয়ারে বসানো যে কয়টি টিউবওয়েলে পানি উঠছে। পূর্বে ৭০০-৮০০ ফুট লেয়ারে বসানো হয়েছিল সেগুলোতে পানি উঠছে না, এই টিউবওয়েল গুলো পুরাই অচল হয়ে রয়েছে। বাধ্য হয়ে বিভিন্ন নলকূপের পানি খেয়ে ডায়রিয়ারসহ বিভিন্ন রোগবালাইতে জরিয়ে পরছেন।

    এতে পৌর নাগরিকরা পুরাই দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। অতি দ্রুত আমি এগুলো পুনসংস্কারের করে দেওয়ার জন্য বলেছি কর্তৃপক্ষকে।

    এআই

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…