এইমাত্র
  • এ সপ্তাহে রাজধানীতে বাড়তে পারে যানজট: ডিএমপি
  • কুমিল্লায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে আহত করলো দুর্বৃত্তরা
  • ‘মূল সড়কে ব্যাটারিচালিত রিকশা চালানো যাবে না’
  • বাসা থেকে দেড় কোটি টাকা চুরি, ৪ দিন পর জানা গেল মেয়েই চোর
  • ট্রাম্পের ফেসবুক-ইনস্টাগ্রামের নিষেধাজ্ঞা সরছে
  • নিজ সন্তানকে নদীতে ফেলে হত্যা: ১৩ বছর পর বাবা গ্রেফতার
  • ১০ নির্দেশনা দিল ‘বৈষম্য বিরোধী আন্দোলন’
  • ফিলিস্তিনি প্রতিবন্ধী তরুণকে কুকুর লেলিয়ে হত্যা করল ইসরায়েলি সেনারা
  • আমি কোন দুর্নীতি করিনি, বললেন সেই মতিউরের স্ত্রী
  • ইতালিতে স্পন্সর ভিসায় জালিয়াতি, বাংলাদেশিসহ গ্রেফতার ৪৪
  • আজ শনিবার, ২৯ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৩ জুলাই, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    ছোট ভাইকে বেঁধে রেখে বোনকে ধর্ষণ

    অসীম কুমার সরকার, রাজশাহী প্রতিনিধি প্রকাশ: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০১:৩০ পিএম
    অসীম কুমার সরকার, রাজশাহী প্রতিনিধি প্রকাশ: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০১:৩০ পিএম

    ছোট ভাইকে বেঁধে রেখে বোনকে ধর্ষণ

    অসীম কুমার সরকার, রাজশাহী প্রতিনিধি প্রকাশ: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০১:৩০ পিএম

    রাজশাহীর তানোরে ছোটভাইকে বেঁধে রেখে শিশু বোনকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

    পুলিশ ওই শিশু ভিকটিম আদিবাসি ছাত্রীকে উদ্ধার করে রবিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাজশাহীর মেডিকেল কলেজ রামেক হাসপাতালে পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করেছেন।

    শনিবার দুপুরে উপজেলার কলমা ইউপির সালবাড়ি সল্লাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের ঘটনায় ভিকটিমের পিতা বাদি হয়ে শনিবার রাতে দুইজনকে আসামি করে তানোর থানায় একটি ধর্ষনের মামলা দায়ের করেছেন।

    অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কলমা ইউপির সালবাড়ি সল্লাপাড়া আদিবাসিপাড়ার জনেক ব্যাক্তি ৫ম শ্রেণির পড়ুয়া মেয়ে এবং ১০ বছরের ছেলে শনিবার স্কুল ছুটি থাকায় দুই ভাই বোন বাড়ি ছেড়ে আধা কিলোমিটার দুরে মাঠে খাড়ির ধারে ঘাস কাটতে যায়।

    দুই ভাই বোনই চকরহমত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেন। এমন সময় এক গ্রামে মনিরুল ইসলামের ছেলে জনি (৩২) এবং আবুল কালামের ছেলে আলি (৩৬) ফাকা মাঠে দুপুরে ছোট দুই ভাই বোন পেয়ে আলি তার ছোট ভাইকে গাছের সঙ্গে বেঁধে ধরে রাখে আর জনি ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে জোর করে মুখে গামছা দিয়ে আটকিয়ে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে চলে যায়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ধর্ষণের শিকার আদিবাসি ছাত্রীকে উদ্ধার করে পরিবারের সদস্যরা।

    এ নিয়ে তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রহিম জানান, ধর্ষণের শিকার আদিবাসি ছাত্রী উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ রামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শনিবার রাতেই একটি ধর্ষণের মামলা হয়েছে। আসামি দুইজনকে আটকের চেষ্টাই পুলিশ কাজ করছে।

    ট্যাগ :

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…