এইমাত্র
  • যুক্তরাষ্ট্রকে মাটিতে নামিয়ে সেমির পথে ছুটছে দক্ষিণ আফ্রিকা
  • কুড়িগ্রামে তিস্তায় নৌকাডুবি, ৫ জনের মরদেহ উদ্ধার
  • ঈদে অতিরিক্ত খেয়ে ১২০০ জনের বেশি হাসপাতালে
  • চু্য়াডাঙ্গায় বিয়ের আসরেই নব বধূকে তালাক দিলেন বর!
  • কুড়িগ্রামে তিস্তা নদীতে নৌকাডুবি, নিখোঁজ ৮
  • নতুন সময়সূচিতে চলাচল করছে মেট্রোরেল
  • মির্জা ফখরুল চান আমরা যুদ্ধে জড়াই: ওবায়দুল কাদের
  • ভারি বর্ষণে টেকনাফে অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি, দুর্ভোগ চরমে
  • কক্সবাজারে পাহাড় ধসে ৯ জনের মৃত্যু
  • সিলেটে ভয়াবহ বন্যায় লাখ লাখ মানুষ পানিবন্দি, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন
  • আজ বৃহস্পতিবার, ৬ আষাঢ়, ১৪৩১ | ২০ জুন, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    রাস্তা ছাড়াই ৬৫ লাখ টাকার ব্রিজ নির্মাণ

    মাহফুজুর রহমান উদয়, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি প্রকাশ: ১১ জুন ২০২৪, ০৩:৩৯ পিএম
    মাহফুজুর রহমান উদয়, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি প্রকাশ: ১১ জুন ২০২৪, ০৩:৩৯ পিএম

    রাস্তা ছাড়াই ৬৫ লাখ টাকার ব্রিজ নির্মাণ

    মাহফুজুর রহমান উদয়, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি প্রকাশ: ১১ জুন ২০২৪, ০৩:৩৯ পিএম

    ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার পাতবিলা এলাকায় খালের উপর ৬৫ লাখ টাকা ব্যয়ে রাস্তা ছাড়াই নির্মাণ করা হয়েছে একটি ব্রিজ। সংযোগ সড়ক না থাকায় নির্মাণের পর থেকে কোনো কাজেই আসছে না ব্রিজটি।

    তথ্য নিয়ে জানা গেছে, ২০২১-২০২২ অর্থবছরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সেতু/কালভার্ট নির্মাণ প্রকল্পের অধীনে পাতবিলা শবির জমির নিকট খালের উপর গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। ব্রিজটির দৈর্ঘ্য ১৫ মি.। এই ব্রিজটি নির্মাণে চুক্তি মূল্য ছিল ৬৫ লাখ ৩৫ হাজার ১৯৪ টাকা। জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার মেসার্স সূর্য এন্টার প্রাইজ নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ব্রিজটি নির্মাণ করেন। এরপর ২০২৩ সালের ২৮ জানুয়ারি এটি উদ্বোধন করেন ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার।

    এলাকাবাসী জানায়, এর আগে পাতবিলা খালের উপর একটি কালভার্ট ছিল। সেটি ভেঙে এই ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে। কিন্তু এটি কোন কাজেই আসছে না।উভয় পাশে রাস্তা না থাকায় ব্রিজটি অকেজো হয়ে পড়ে আছে। রাস্তার ব্যবস্থা না করে এটি নির্মাণ করে সরকারের লাখ লাখ টাকা নষ্ট করা হয়েছে বলেও ধারণা এলাকাবাসীর।

    শরিফুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি জানান, পাতবিলা খালের উপর যে ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছে সেটি কাজেই আসছে না। লাখ লাখ টাকা খরচ করেও কোনো উপকার হচ্ছে না সাধারণ মানুষের। রাস্তা না থাকায় কেউ যাতায়াত করতে পারছে না। এমন প্রকল্প তৈরি করে সরকারের টাকা হরিলুট করার জন্য। দ্রুতই ব্রিজের উভয় পাশে রাস্তার ব্যবস্থা করা দরকার। নাহলে সেটি অকেজো হয়ে পড়ে থাকবে।

    শিমলা-রোকনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাসির চৌধুরি জানান, মাঠের ধান নিয়ে যাওয়ার জন্য ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছিল। যদিও এই প্রকল্প সম্পর্কে আমার তেমন কিছুই জানা নেই। এগুলো দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অধীনে হয়ে থাকে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করেন।

    উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সুলতানা জাহান বলেন, সাংবাদিকদের মাধ্যমে খোঁজ পেয়ে সেখানে রাস্তার কাজ শুরু করা হয়েছে। এখনো চলমান রয়েছে। ডিসি স্যার রাস্তার কাজের জন্য বরাদ্দ দিয়েছেন।

    এইচএ

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…