এইমাত্র
  • কোটা আন্দোলনের সমন্বয়ককে বিশেষ নিরাপত্তা দিল চবি প্রক্টরিয়াল বডি
  • ঢামেকে ঢুকে আহত আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা
  • উপাচার্য কেন এখনো বাসভবনে, প্রশ্ন ঢাবি শিক্ষার্থীদের
  • বদলে গেল ঢাবি শিক্ষার্থীদের ফেসবুক প্রোফাইল
  • ক্ষত চিহ্ন লুকিয়ে ফের শুটিংয়ে ক্যানসার আক্রান্ত হিনা খান
  • সংঘর্ষে ‘রণক্ষেত্র’ ঢাবি, উপাচার্যের বাসভবনে জরুরি বৈঠক
  • কোটা সংস্কার আন্দোলন চলবে: বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন
  • আমার পুরো বংশেরও এতো টাকা হবে না: পিয়ন জাহাঙ্গীর
  • ছাত্রদল-শিবিরের চিহ্নিত ক্যাডাররা হামলা করেছে: সৈকত
  • টাঙ্গাইলে বাস-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৪
  • আজ মঙ্গলবার, ৩১ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৬ জুলাই, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    টাঙ্গাইলে স্বেচ্ছাশ্রমে সাঁকো নির্মাণ

    রাইসুল ইসলাম লিটন, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি প্রকাশ: ১০ জুলাই ২০২৪, ০৮:০২ পিএম
    রাইসুল ইসলাম লিটন, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি প্রকাশ: ১০ জুলাই ২০২৪, ০৮:০২ পিএম

    টাঙ্গাইলে স্বেচ্ছাশ্রমে সাঁকো নির্মাণ

    রাইসুল ইসলাম লিটন, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি প্রকাশ: ১০ জুলাই ২০২৪, ০৮:০২ পিএম

    পাঁচ শতাধিক পরিবারের যাতায়াতের জন্য কাঠের সাঁকো নির্মাণ করে দিলেন এসি আকরাম ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে স্থানীয় যুবকরা। এতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশংসায় ভাসছেন স্থানীয় ওই যুবকরা ।

    বন্যা কবলিত এলাকায় যেখানেই মানুষের যাতায়াতের অসুবিধা সেখানেই এসি আকরাম ফাউন্ডেশনের হাতছানি আছে বলে জানান হুগড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নূর-এ আলম তুহিন।

    জানা যায়, টাঙ্গাইলের সদর উপজেলার হুগড়া ইউনিয়নের শওকত ডাক্তারের বাড়ির পূর্ব পাশের খালে বন্যার পানি প্রবেশ করায় প্রায় পাঁচ শতাধিক পরিবারের যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।বিষয়টি স্থানীয় যুবকদের নজরে আসলে তাৎক্ষনিক এসি আকরাম ফাউন্ডেশনের উদ্দেগে সাকোঁর কাজ করতে শুরু করেন স্থানীয় যুবকরা। সাকোঁটি তৈরি করতে তাদের সময় লেগেছে এক সপ্তাহ।

    স্থানীয়রা জানায়, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে শত শত ঘরবাডিসহ রাস্তা ঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে। হুগড়া ইউনিয়নে যে সমস্ত জায়গাতে রাস্তাঘাট বেহাল দশা সে সমস্ত রাস্তা ঘাটসহ দুঃস্থ মানুষের পাশে এসে দাঁড়ায় এসি আকরাম ফাউন্ডেশনের সদস্যরা । ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম দেখে এলাকার অনেক মানুষ ওইসব যুবকদের পাশে এসে সাকোর সার্বিক সহযোগিতা করেন।

    হুগড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো.নূর-এ আলম তুহিন জানান,স্থানীয় যুবকদের সমাজের ভাল ভাল কাজ দেখে আমি নিজেই উদ্বুদ্ধ হই।

    এরপর থেকে তাদের সাথে এসি আকরাম ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে ইউনিয়নে বেশ কিছু বাজার ঘাটে বিশুদ্ধ পানির টিউবওয়েল স্থাপন করা হয়।এর মধ্য বেগুনটাল তালেবের বাড়ি,চাকলাদার পাড়া জিয়া চাকলাদারের বাড়ি, উত্তর হুগড়া ফকির বাজার, মোশারফের বাড়ি ও নরসিংহপুরে নওশের বাড়িতে স্থাপন করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন সাধারণ মানুষের মাঝে।

    এছাড়াও অসহায় দুঃস্থ মানুষকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা কাজে সহায়তাসহ রক্ত দানেও ভুমিকা থাকে।

    যুব সমাজের প্রথম গ্রুপের সদস্য রিপন মন্ডল জানান, আমাদের গ্রূপে প্রথমে আট দশজন ছিলাম।এখন আমাদের কাজে উৎসাহিত হয়ে আমাদের ইউনিয়নের যুবসমাজ প্রায় ৬০জন সদস্য রয়েছে। যাদের মধ্য সবচেয়ে বেশি ভুমিকায় রয়েছে রউফ, হৃদয়, হেল্লাল, ভাসানী ও রফিক।

    তিনি আরো জানান, আমি এপর্যন্ত ১০জন অসহায় রোগীকে রক্ত দিয়েছি। সব সময় মানবতার কাজে হুগড়া ইউনিয়নের এ যুব সমাজ কাজ করবে এই প্রত্যাশা আমাদের।

    এসি আকরাম ফাউন্ডেশন মানবতার যে কাজগুলি করছে এটা শুধু লোক দেখানো নয় । ফাউন্ডেশনের ভাল কাজ দেখে যাতে অন্য ইউনিয়নের যুব সমাজ অসহায় দুঃস্থ মানুষের পাশে থেকে মানবতার কাজ করবে এবং আমাদের এই মানবতার কাজ জেলায় ছডিয়ে যাবে এটাই প্রত্যাশা এসি আকরাম ফাউন্ডেশনের।

    এসএফ

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…