এইমাত্র
  • ঈদুল আজহা সাধারণ মানুষের জন্য অত্যন্ত কষ্টকর দিন হয়ে আসে: মির্জা ফখরুল
  • ভারী বৃষ্টিতে ডুবল সিলেট, ঈদ আনন্দ ম্লান
  • গণভবনে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • নেপালকে হারিয়ে সুপার এইটে বাংলাদেশ
  • জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত, নামাজ পড়লেন রাষ্ট্রপতি
  • ৪০ হাজারের বেশি মুসল্লি নিয়ে আল-আকসায় ঈদের জামাত
  • ২২০০ পশুর গোশতো বিতরণ হবে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে
  • ঈদের দিন রাজধানীসহ দেশের যেসব অঞ্চলে বৃষ্টির সম্ভাবনা
  • বায়তুল মুকাররমে ঈদুল আজহার ৫ জামাতের সময়সূচি
  • দেশবাসীর উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী ভিডিও বার্তায় যা বললেন
  • আজ সোমবার, ৩ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৭ জুন, ২০২৪
    দেশজুড়ে

    সিলেটে সড়ক দুর্ঘটনা

    ছেলের জন্য পাত্রী দেখে রেখেছিলেন সৌরভের মা

    আবুল হোসেন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সিলেট প্রকাশ: ৭ জুন ২০২৩, ০৬:৩৯ পিএম
    আবুল হোসেন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সিলেট প্রকাশ: ৭ জুন ২০২৩, ০৬:৩৯ পিএম

    ছেলের জন্য পাত্রী দেখে রেখেছিলেন সৌরভের মা

    আবুল হোসেন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সিলেট প্রকাশ: ৭ জুন ২০২৩, ০৬:৩৯ পিএম

    এক সপ্তাহ আগে বেড়ানোর কথা বলে সুনামগঞ্জের দিরাই থেকে সিলেটে এসেছিলেন সৌরভ মিয়া (২৭)। পরে বাড়ির লোকদের না জানিয়েই পরিচিতদের সঙ্গে নির্মাণ শ্রমিকের কাজে লেগে যান।

    এদিকে বাড়িতে তার বিয়ের জন্য পাত্রী পছন্দ করে রেখেছিলেন মা আমিনা বেগম। এরইমধ্যে ট্রাকের সঙ্গে পিকআপ ভ্যানের সংঘর্ষে সৌরভের মৃত্যু হয়। আর এই মৃত্যু কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না আমিনা বেগম।

    ছেলের মৃত্যুর খবর শুনে স্বামী সিরাজ মিয়ার সঙ্গে হাসপাতালে আসা আমিনা বেগম বুধবার সাড়ে ১২টার দিকে কান্নাজনিত কণ্ঠে বলেন, “আমার পুতরে (ছেলে) বিয়া কারইতে আসলাম, মেয়ে দেখি রাখছিলাম গো। আমার পুতের কিতা হইল, তোমরা আমার পুতরে আনি দেও।’’

    শোকাহত এই মায়ের কান্না-আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠেছে সিলেটের ওসমানী হাসপাতালের পরিবেশ। তাকে ধরে রাখা স্বজনরাও সৌরভের বিভিন্ন কথা বলে-বলে কান্না করছেন। পাশে বসেই কান্না করছেন সিরাজ মিয়াও।

    সিরাজ মিয়া ও আমিনা বেগমের বাড়ি দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামে। তাদের ছেলে সৌরভ মিয়া বেড়াতে এসে সিলেট নগরীর আম্বরখানা এলাকায় পরিচিতদের সঙ্গে নির্মাণ শ্রমিকের কাজে যুক্ত হয়েছিলেন। প্রতিদিনের মতো বুধবার ভোরে উঠে ওসমানীনগরের গোয়ালাবাজারে যাওয়ার জন্য পিকআপে উঠেন সৌরভসহ ৩০ জন নির্মাণশ্রমিক।

    পথে ভোর সাড়ে ৫টার দিকে দক্ষিণ সুরমায় নাজিরবাজার এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে মালবাহী একটি ট্রাকের সঙ্গে তাদের বহনকারী পিকআপ ভ্যানের সংঘর্ষে সৌরভসহ ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন ১০-১২ জন।

    বেলা গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে হতাহতদের স্বজনের ভিড় বাড়তে থাকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। তাই আমিনা বেগমের আশে-পাশে আরও অনেকে কান্নায়-আহাজারিতে স্বজন হারানোর শোক জানাচ্ছেন।

    সম্পর্কিত:

    সম্পর্কিত তথ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি

    সর্বশেষ প্রকাশিত

    Loading…